কলকাতা: পশ্চিমবঙ্গে সাত জন আক্রান্ত হওয়ার খবরে যথেষ্ট উদ্বিগ্ন ছিল রাজ্যবাসী। এবার সামনে এলো মৃত্যুর খবর। সোমবার বিকেল পাঁচটা থেকে কলকাতা শহর লকডাউন হয়ে যাচ্ছে। তার ঠিক আগেই এল পশ্চিমবঙ্গে প্রথম করোনা আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুর খবর।

আমরি হাসপাতালে দমদমের যে বাসিন্দা চিকিৎসাধীন ছিলেন, সোমবার তাঁর মৃত্যু হয়েছে। তবে তাঁর মৃতদেহ পরিবারকে দেওয়া হবে না বলে প্রশাসনের তরফ থেকে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে। যেহেতু এই ভাইরাস দ্রুত ছড়িয়ে পড়ে, তাই এই মৃতদেহ ডিসপোজালের কিছু নিয়ম রয়েছে। আর সেই নিয়ম মেনেই সৎকার করা হবে বলে জানানো হয়েছে।

সূত্রের খবর সম্প্রতি বিলাসপুর থেকে ট্রেনে ফিরেছিলেন ওই ব্যক্তি। আজাদ হিন্দ এক্সপ্রেস এ কলকাতায় ফেরেন তিনি। এরপরই অসুস্থ হয়ে পড়েছিলেন। জ্বর সর্দি নিয়ে ভর্তি হন আমরি হাসপাতালে। তাঁর বিদেশযাত্রার কোন ইতিহাস না থাকলেও, লক্ষণ দেখে চিকিৎসকরা ভাইরাস পরীক্ষা করাতে দেন। আর তাতেই জানা যায় তিনি করোনা আক্রান্ত।

মৃত ব্যক্তির পরিবারের সবাই হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। এম আর বাঙ্গুর হাসপাতালে তাঁদের চিকিৎসা চলছে বলে জানা গিয়েছে।

আরও জানা যাচ্ছে, ওই ব্যক্তির ছেলে থাকেন আমেরিকায়। ছেলের সঙ্গে এই ব্যক্তির কোনও ভাবে দেখা হয়েছিল কিনা তা জানা যায়নি।

হাসপাতালে ভর্তি হওয়ার পর শারীরিক অবস্থার অবনতি হওয়ায় ভেন্টিলেশন রাখতে হয় তাঁকে। ভেন্টিলেশনে থাকা অবস্থাতেই সোমবার হৃদরোগে আক্রান্ত হন ওই ব্যক্তি।

এদিকে সোমবার সকালে করোনা আক্রান্ত সন্দেহে বেলেঘাটা আইডি হাসপাতলে আরও তিনজনকে ভর্তি করা হয়েছে। এদের মধ্যে একজন মুর্শিদাবাদের বাসিন্দা যিনি পেশায় শ্রমিক। রয়েছেন নাগেরবাজার এর আরো এক বাসিন্দা।

ইএম বাইপাস সংলগ্ন রুচিরা আবাসন এর বিদেশ ফেরত এক বাসিন্দাকে আইডি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।