প্রতীকী ছবি

তিমিরকান্তি পতি, বাঁকুড়া: করোনা সংক্রমণ রোধে দেশ জুড়ে ‘লকডাউন’ চলছে। এর মধ্যেও বসন্তের পাতা ঝরা মরশুমে জঙ্গলে আগুন লাগানোর ঘটনা অব্যাহত বাঁকুড়ায়। যার জেরে উদ্বিগ্ন প্রশাসন।

গত কয়েক দিন ধরে সোনামুখী বনাঞ্চলের বিভিন্ন অংশে ধারাবাহিক আগুন লাগার ঘটনায় যথেষ্ট উদ্বিগ্ন রয়েছে বনদফতর। কে বা কারা এই ঘটনা ঘটাচ্ছে তার তদন্ত শুরু করেছেন তারা। একই সঙ্গে সোনামুখীর বিভিন্ন অংশে সাধারণ মানুষকে সচেতন করতে বনদফতরের পক্ষ থেকে ধারাবাহিক প্রচার চালাচ্ছে প্রশাসন।

বিশেষজ্ঞদের মতে, এভাবে প্রত্যেক বছর জঙ্গলে আগুন লাগানোর ঘটনায় বনজ সম্পদের ক্ষতির পাশাপাশি বাস্তুতন্ত্র ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে। একই সঙ্গে বন্যপ্রাণী সহ অন্যান্য জীবজন্তুর প্রাণহানির আশঙ্কা তৈরি হচ্ছে। এই অবস্থায় জঙ্গলে আগুন লাগানোর ঘটনা বন্ধ করতে বনদফতরকে আরও কঠোর হওয়ার পরামর্শ দিচ্ছেন অনেকে।

জঙ্গলে আগুন লাগানোর ঘটনা স্বীকার করে নিয়েছেন সোনামুখীর বনাধিকারীক দয়াল চক্রবর্ত্তী। তিনি বলেন, জঙ্গলে কে বা কারা আগুন লাগিয়ে দিচ্ছে বোঝা যাচ্ছে না। বনকর্মীরা সব সময় পরিস্থিতির উপর কড়া নজর রেখেছেন।

তবে তাদের নিজস্ব তদন্তের প্রাথমিক পর্যায়ে চোরা শিকারী, স্থানীয়দের একাংশের যোগ রয়েছে বলে জানা গেছে বলে তিনি জানান। একই সঙ্গে লকডাউনের দিনগুলিতে জঙ্গলের ভিতরে কোনও ব্যক্তিকে দেখতে পাওয়া গেলে তার বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে তিনি জানান।