প্রতীতি ঘোষ, ব্যারাকপুর: উত্তর ২৪ পরগনার হালিশহর পুরসভার ৯ নম্বর ওয়ার্ডের বৈদ্য পাড়ায় বিজেপির এক অনুষ্ঠান মঞ্চ পুড়িয়ে দিল দুষ্কৃতীরা। এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে উত্তেজনা ছড়িয়েছে হালিশহর পুরসভা এলাকায় ।

গত ২৭ শে জানুয়ারি হালিশহরের বৈদ্য পাড়ায় ব্যক্তিগত জমিতে বিজেপির পক্ষ থেকে পিঠে পুলি উৎসবের আয়োজন করা হয়েছিল । ওই উৎসব মঞ্চই দুষ্কৃতীরা মধ্য রাতে আগুন লাগিয়ে পুড়িয়ে দেয় বলে অভিযোগ । গোটা ঘটনায় বিজেপির পক্ষ থেকে তৃণমূলের বিরুদ্ধে অভিযোগ জানানো হয়েছে ।

হালিশহরের স্থানীয় বিজেপি নেতা তথা বিজেপি কাউন্সিলর দেবাশীষ দত্ত অভিযোগ করেছেন, “গভীর রাতে বাইকে করে দুই দুষ্কৃতী এসে আমাদের এই উৎসব মঞ্চে আগুন লাগিয়ে দিয়েছে । আমাদের কেয়ারটেকার ওই দুষ্কৃতীদের তাড়া করলে তারা পালিয়ে যায়। তৃণমূল আশ্রিত দুষ্কৃতীরা এই ঘটনা ঘটিয়েছে। তবে এই ঘটনা যাদের নেতৃত্বে হয়েছে তাদের বিরুদ্ধে আমরা হালিশহরের মানুষকে নিয়ে আন্দোলনে শামিল হব।”

বিজেপির পক্ষ থেকে গোটা ঘটনার অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে স্থানীয় বীজপুর থানায় । পুলিশ এই ঘটনার তদন্ত শুরু করলেও এখনও কাউকে গ্রেফতার করতে পারেনি ।

আরও পড়ুন – সংসদের স্থায়ী কমিটি হাতছাড়া তৃণমূলের

অন্যদিকে এই ঘটনা প্রসঙ্গে তৃণমূল কংগ্রেস দায় অস্বীকার করেছে । হালিশহর পুরসভার তৃণমূল কাউন্সিলর প্রণব লোহ বলেন, “বিজেপির গোষ্ঠী কোন্দলের জেরে ওই ঘটনা ঘটে থাকতে পারে । তৃণমূল কংগ্রেস এখন উন্নয়ন কর্মসূচি নিয়ে ব্যস্ত । আমাদের দল কোন দুষ্কৃতীকে প্রশ্রয় দেয় না। তাছাড়া দুষ্কৃতীদের কোন রাজনৈতিক পরিচয় হয় না । দুষ্কৃতী মানে দুষ্কৃতী । পুলিশ প্রশাসন এই ঘটনার নিরপেক্ষ তদন্ত করে দোষীদের গ্রেফতার করুক । যেই দোষী হোক, শাস্তি হওয়া উচিত ।”

বিজেপির ওই উৎসব মঞ্চ আগুনে পুড়ে যাওয়ায় বন্ধ হয়ে গেল হালিশহ র পিঠে পুলি উৎসব । গোটা ঘটনার জেরে হালিশহর পুরসভা এলাকায় শুরু হয়েছে রাজনৈতিক চাপানোতর।