কলকাতাঃ  বছর ঘুরলেই বিধানসভা ভোট! আর তাই ভোটের আগে একেবারে কল্পতরু মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। গত কয়েকদিন আগেই ব্রাহ্মণদের ভাতা দেওয়া থেকে শুরু করে একগুচ্ছ ঘোষণা করেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

পড়ুন আরও- পরীক্ষা ছাড়াই সরাসরি ইন্টারভিউর মাধ্যমে চাকরি, বেতন ১৫ হাজার

শুধু তাই নয়, সিভিক ভলেন্টিয়ার থেকে শুরু করে সমাজের বিভিন্ন শ্রেণির মানুষের জন্যে একগুচ্ছ সিদ্ধান্ত নিচ্ছেন মুখ্যমন্ত্রী। এবার অস্থায়ী তিন হাজার কর্মীর চাকরি নিশ্চিত করল দমকল। দমকল দফতরের অস্থায়ী তিন হাজার কর্মীর ৬০ বছর বয়স পর্যন্ত চাকরি নিশ্চিত করে দেওয়া হয়েছে।

পড়ুন আরও- করোনার গ্রাসে মাদুর গ্রাম, শিল্পীরা ধুঁকছে, বন্ধ শিল্প

যার ফলে এবার থেকে আর প্রতিবছর চুক্তি পুনর্নবীকরণের প্রয়োজন হবে না। সরকারের এহেন মানবিক সিদ্ধান্তে উপকৃত হবেন কয়েক হাজার শ্রমিক। আগেই এই বিষয়ে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ঘোষণা করেছিলেন। অস্থায়ী কর্মীদের স্থায়ী করার বিষয়ে ভাবনা চিন্তা করছে সরকার, জানানো হয় নবান্নের।

এরপরেই দমকল বিভাগের অফিসে এসে বিভাগীয় আধিকারিকদের সঙ্গে বৈঠক করেন দমকল মন্ত্রী সুজিত বসু। ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে বিভিন্ন ডিভিশনের আধিকারিকদের সঙ্গে আলোচনা করেন তিনি। পরে সুজিত বসু বলেন, দীর্ঘদিনের দাবি ছিল। মুখ্যমন্ত্রী সেই দাবি মিটিয়েছেন।

অস্থায়ী ৩০০০ দৈনিক মজুরি ভিত্তিক কর্মচারীদের কথা মাথায় রেখে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। তাঁদের দৈনিক মজুরি বাড়ানো হয়েছে। তাঁদের কোনও ছুটি ছিল না। এখন থেকে ১৪ দিন সিএল এবং ১০ দিন সিসিএল পাবেন তাঁরা। ৬০ বছর শেষে অবসরের সময় তিন লক্ষ টাকা দেওয়া হবে।

পাশাপাশি, স্বাস্থ্য সাথী প্রকল্পে নাম নথিভুক্ত করা হবে। সেইসঙ্গে দমকল বিভাগের স্থায়ী নিয়োগের ক্ষেত্রে ১৫ শতাংশ আসনে এই চুক্তিভিত্তিক দৈনিক মজুরি পাওয়া কর্মচারীরা অগ্রাধিকার পাবেন বলেই জানিয়েছেন সুজিত।

অন্যদিকে, কিছুদিন আগেও মুখ্যমন্ত্রী বাংলার পুরোহিতদের বিভিন্ন দাবি-দাওয়া মেনে নিয়েছেন। এবং কোলাঘাটে ব্রাহ্মনদের জন্য জমি প্রদান করেছেন। পাশাপাশি পুরোহিতদের ‘ভাতা’ দেওয়ার কথা ঘোষণা করেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সঙ্গে মিলবে আগামিদিনে একটা করে ঘরও।

বিধানসভা ভোটের আগে পুরোহিতদের জন্যে কল্পতরু মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তাঁর এই ঘোষণার পরেই আজ শনিবার রাজ্য জুড়ে ‘ধন্যবাদ জ্ঞাপন’ কর্মসূচী নিলেন পশ্চিমবঙ্গ সনাতন ব্রাহ্মণ ট্রাস্টের সদস্যরা। পাশাপাশি গত কয়েকদিন আগে বেকার যুবক-যুবতিদের কথা ভেবে নয়া প্রকল্প ঘোষণা করেছেন।

কর্মসাথী প্রকল্পের বিজ্ঞপ্তি জারি করা হয়েছে৷ এর ফলে প্রতি বছর প্রায় ১ লাখ বেকার যুবক ও যুবতী উপকৃত হবে৷ ১৮ থেকে ৫০ বছর পর্যন্ত বয়স যাদের, তারা এই প্রকল্পে আবেদন করতে পারবেন৷

যোগ্য আবেদনকারীকে ৩ বছরের জন্য ঋণ বাবদ ২ লাখ টাকা মাথাপিছু অর্থ সাহায্য করবে রাজ্য সরকার৷ আবেদনকারীকে অবশ্যই পশ্চিমবঙ্গের স্থায়ী বাসিন্দা হতে হবে৷ একটি পরিবার থেকে কেবলমাত্র একজনই আবেদন করতে পারবেন।

প্রশ্ন অনেক-এর বিশেষ পর্ব 'দশভূজা'য় মুখোমুখি ঝুলন গোস্বামী।