গভীর রাতে ভয়াবহ অগ্নিকান্ডের ঘটনা।
গভীর রাতে ভয়াবহ অগ্নিকান্ডের ঘটনা।

স্টাফ রিপোর্টার, দিঘা : গভীর রাতে ভয়াবহ অগ্নিকান্ডের ঘটনা। সম্পূর্ণ ভস্মীভূত দুটি পাইকারি মাছের দোকান সহ ১১ টি দোকান। খবর পেয়েই ঘটনাস্থলে পৌঁছয় দমকলের দুটি ইঞ্জিন।

প্রায় ঘন্টা দুয়েকের চেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে। ভয়াবহ এই অগ্নিকান্ডের জেরে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। সম্পূর্ণ ভস্মীভূত হয়ে গিয়েছে বাজারের আশেপাশের সমস্ত দোকানে। ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ প্রায় কোটি টাকার উপরে। কীভাবে এত বড় আগুন লাগল তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

করোনার কারণে এমনিতেই ব্যবসায় মন্দা যাচ্ছে ব্যবসায়ীদের। এই অবস্থায় ভয়ঙ্কর এই অগ্নিকান্ডের ঘটনায় নাথায় হাত ব্যবসায়ীদের। জানা যাচ্ছে, শনিবার রাত সাড়ে ১২ টা নাগাদ ঘটনাটি ঘটেছে পূর্ব মেদিনীপুর জেলার দিঘা মৎস্য নিলাম কেন্দ্রের একটি পাইকারি মাছ বাজারে।

জানা গিয়েছে, এদিন রাত সাড়ে ১২ টা নাগাদ দীঘা মোহনার মৎস্য নিলাম কেন্দ্রের একটি পাইকারি মাছের দোকানে কোনও এক অজ্ঞাত কারণে হঠাৎই দাউদাউ করে আগুন জ্বলতে দেখা যায়। ঘটনার কয়েক সেকেন্ডের মধ্যে পাশে থাকা আরও ১ টি মাংসের দোকান, ২ টি মাছের দোকান, ৩ টি কাপড় ও জুতোর দোকান, ৩টি সেলুন, ২ টি হার্ডওয়্যারর্স দোকান, ২টি খাবারের দোকান পুরোপুরি আগুনে ভস্মীভূত হয়ে যায়।

এছাড়াও রাস্তার বিপরীতে থাকা ৬ টি দোকানে আগুনের তাপে বেশ ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। রাতেই কালো ধোঁয়াতে ঢেকে যায় চারপাশ। বাজারের কাছে থাকা স্থানীয় লোকজন আগুন লাগার বিষয়টি বুঝতে পেরে সঙ্গে সঙ্গে দমকলে খবর দেন।

কিছুক্ষণের মধ্যে ঘটনাস্থলে দমকলের ২ টি ইঞ্জিন সহ দমকলকর্মীরা উপস্তিত হয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনেন। যদিও গভীর রাতের ঘটনা হওয়ায় প্রাণহানির আশঙ্কা এড়ানো গিয়েছে। তবে ঠিক কী ভাবে এই আগুন লাগানোর ঘটনাটি ঘটল তা নিয়ে যথেষ্ট ধোঁয়াশায় স্থানীয় ব্যবসায়ী মহল।

যদিও গোটা বিষয়টি খতিয়ে দেখে ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ। নিছক দুর্ঘটনা নাকি এর পিছনে অন্য কোনও কারণ রয়েছে কিনা তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

প্রশ্ন অনেক-এর বিশেষ পর্ব 'দশভূজা'য় মুখোমুখি ঝুলন গোস্বামী।