নয়াদিল্লি : রাত বাড়তেই নতুন করে উত্তপ্ত নয়াদিল্লি। আগুন জ্বালিয়ে দেওয়া হলো দিল্লির গোকুলপুরি টায়ার মার্কেটে। রাত ১১ টা ৪০ মিনিট নাগাদ এই অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে ঘটনাস্থলে পৌঁছেছে দমকলের ১৫ টি ইঞ্জিন। এদিন দুপুর থেকেই উত্তপ্ত দিল্লি। নাগরিকত্ব আইনের প্রতিবাদ ঘিরে সংঘর্ষের জেরে এখনো পর্যন্ত ৫ জনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গিয়েছে।

এরপর রাতেই এই আগুন ধরিয়ে দেওয়ার ঘটনা ঘটলো। বেশ কয়েকটি দোকান জ্বলে-পুড়ে গিয়েছে বলে সূত্রের খবর। দিল্লির নর্থ ইস্ট ডিস্ট্রিক্ট এর অন্তর্গত এই গোকুলপুরি। নাগরিকত্ব আইনের যেখানে একাধিক সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। তা এদিনের অগ্নিকাণ্ড সংঘর্ষের জেরে কিনা তা। সরকারি সূত্রে জানা যায়নি। যদিও পুরো এলাকায় 144 ধারার অধীনে রয়েছে। এদিন দুপুর থেকেই রণক্ষেত্রে চেহারা নেয় রাজধানী। পুলিশের হেড কনস্টেবল সহ মোট ৫ জনের মৃত্যুর খবর এখনো পর্যন্ত পাওয়া গিয়েছে এদের মধ্যে চারজন সাধারন নাগরিক।

অন্তত ১১ জন পুলিশ কর্মী আহত হয়েছেন বলে জানা গিয়েছে। ইটের আঘাতে মৃত্যু হয়েছে রতনলাল নামে এক পুলিশের হেড কনস্টেবলের। বিক্ষোভকারীদের ছোড়া ইটের আঘাতে গুরুতর চোট পান রতনলাল। তখনই তাঁকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। হাসপাতালে নিয়ে গেলে তাঁকে মৃত বলে ঘোষণা করা হয়। সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হওয়া একটি ভিডিওয় দেখা যাচ্ছে এক বিক্ষোভকারী পুলিশের দিকে বন্দুক নিয়ে এগিয়ে যাচ্ছেন। একদিকে ভারতে সফরে এসেছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প।

আর অন্যদিকে এদিনই আগুন জ্বলল দিল্লিতে। সরকারি একটি সূত্রের দাবি, মার্কিন প্রেসিডেন্ট উপস্থিত থাকাকালীন যাতে এই ধরনের ঘটনা ঘটে, সেটা পরিকল্পনামাফিকই করা হয়েছে। যদিও আরও উচ্চপর্যায়ের তদন্ত করে এই ব্যাপারে সঠিক সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে বলে উল্লেখ করেছেন এক পদস্থ অফিসার।