মুম্বই: সুশান্ত সিং রাজপুত মৃত্যু তদন্তভার বুধবার নিয়েছে সিবিআই। ২৪ ঘণ্টা কাটতে না কাটতেই সুশান্তের বান্ধবী তথা অভিনেত্রী রিয়া চক্রবর্তী ও তাঁর গোটা পরিবারের বিরুদ্ধ এফআইআর রেজিস্টার করল সিবিআই।

এএনআই সূত্রে জানা যাচ্ছে রিয়া চক্রবর্তী, ও তাঁর বাবা ইন্দ্রজিৎ চক্রবর্তী, মা সন্ধ্যা চক্রবর্তী, ভাই শৌভিক চক্রবর্তী, স্যামুয়েল মিরান্ডা ও শ্রুতি মোদী সহ মোট ৬ জনের বিরুদ্ধে এফআইর দায়ের হয়েছে। অপরাধমূলক ষড়যন্ত্র, আত্মহত্যায় প্ররোচনা, চুরি, প্রতারণা-সহ আরও বেশ কয়েকটি অভিযোগ উঠেছে তাঁদের দিকে।

প্রসঙ্গত, গত সপ্তাহেই পটনার রাজীব নগর থানায় রিয়ার বিরুদ্ধে বেশ কয়েকটি অভিযোগ দায়ের করেন সুশান্তের বাবা কে কে সিং। ঘটনার তদন্ত করছিল মুম্বই পুলিশ। সুশান্তের বাবার এফআইআর এর পরে বিহার পুলিশ তদন্ত শুরু করে। অন্যদিকে সুশান্তের অনুরাগীরা চাইছিলেন ঘটনার তদন্ত করুক সিবিআই। সুশান্তের দিদিও জানিয়েছিলেন তিনি ভাইয়ের মামলায় সুবিচার চান।

মঙ্গলবার বিহারের মুখ্যমন্ত্রী নীতিশ কুমারও আবেদন রাখেন, মামলাটি সিবিআইয়ের হাতে তুলে দেওয়ার জন্য। অবশেষে বুধবার ৫ অগাস্ট সিবিআই এই তদন্তের দায়িত্ব নেয়।

অন্যদিকে, সুশান্তের বাবা কে কে সিং অভিনেত্রী রিয়া চক্রবর্তীর বিরুদ্ধে রাজীব নগর থানায় এফআইআর দায়ের করেন। তার পরেই বিহার পুলিশ তদন্তে নামে। এরই মধ্যে রিয়াও সুপ্রিম কোর্টের কাছে আবেদন করেছিল ঘটনার তদন্ত বিহার থেকে মুম্বইয়ে স্থানান্তরিত করা হোক। এরও শুনানি হওয়ার কথা ছিল বুধবার। সুপ্রিম কোর্ট আগামী তিন দিনের মধ্যে সমস্ত পার্টিকে এর উত্তর জানাতে বলেছে। তার উপর ভিত্তির করে শুনানি হবে এক সপ্তাহ পরে। এছাড়াও রিয়ার আইনজীবি রিয়ার বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের হওয়ার পরে স্থগিতাদেশের আবেদন করেছিলেন সুপ্রিম কোর্টের কাছে। কিন্তু সেই আবেদনও খারিজ করে দেয় সুপ্রিম কোর্ট।

অবশেষে রিয়া-সহ তাঁর গোটা পরিবারের বিরুদ্ধে সিবিআই এফআইআর দায়ের করায় খুশি সুশান্তের অনুরাগীরা। তাঁরা সুশান্তের মৃত্যুর পর থেকে সুবিচার চেয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় নিজেদের দাবিতে অনড় ছিলেন।

পপ্রশ্ন অনেক: নবম পর্ব

Tree-bute: আমফানের তাণ্ডবের পর কলকাতা শহরে শতাধিক গাছ বাঁচাল যারা