নয়াদিল্লি: সারা ভারত কৃষক সভার নেতৃত্বে চলা সরকারের কৃষি আইনের বিরোধিতায় লক্ষ লক্ষ কৃষক রাজধানী ঘেরাও করেছেন। এনডিএ সরকারের সঙ্গে বিক্ষোভকারী কৃষক সংগঠনগুলির আলোচনা চলার মাঝেই এফআইআর দায়ের করা হলো এআইকেএস সাধারণ সম্পাদক হান্নান মোল্লার বিরুদ্ধে।

এফআইআর হয়েছে তা স্বীকার করেছেন পশ্চিমবঙ্গের উলুবেড়িয়ার প্রাক্তন সিপিআইএম সাংসদ। তিনি এখন দিল্লিতে আছেন। দলীয় কৃষক সংগঠন সারা ভারত কৃষকসভার নেতৃত্বে চলা কেন্দ্রের কৃষি আইনের বিরোধিতার নেতৃত্ব দিচ্ছেন। দিল্লি ও হরিয়ানার সীমানায় হান্নান মোল্লা সহ বিভিন্ন সংগঠনের নেতারা ক্রমাগত অবরোধ চালিয়ে যাচ্ছেন।

কৃষক বিক্ষোভ ও রাজধানী ঘেরাও এক সপ্তাহ পার করেছে। সরকারের সঙ্গে কৃষক সংগঠনগুলির দফায় দফায় আলোচনা ব্যর্থ। কোনওভাবেই কেন্দ্রীয় সরকারের তিন কৃষি আইন মানতে নারাজ কৃষকরা। ইতিমধ্যেই ১২ লক্ষের বেশি কৃষক দিল্লির কাছে এসে অবস্থান করছেন।

হরিয়ানা, উত্তর প্রদেশ, পাঞ্জাব, উত্তরাখণ্ডে ছড়িয়েছে বিক্ষোভ। সেই রেশ গিয়ে পড়েছে দক্ষিণ ভারতের রাজ্যগুলিতে। বিক্ষোভরত কৃষকদের যৌথ মঞ্চ অল ইন্ডিয়া কিসান সংঘর্ষ সমিতির নেতৃত্বরা জানিয়েছেন, আইন বাতিল না হলে দিল্লি ঘেরাও চলবেই।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

কোনগুলো শিশু নির্যাতন এবং কিভাবে এর বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ানো যায়। জানাচ্ছেন শিশু অধিকার বিশেষজ্ঞ সত্য গোপাল দে।