মেলবোর্ন: আইপিএল শুরু হতে এখনও প্রায় দেড় মাস বাকি৷ আইপিএল ২০২০ নিয়ে যে খেলোয়াড়দের উন্মাদনা শুরু হয়ে গিয়েছে, তা বোঝা যায়৷ কয়েকজন তো আইপিএলের জন্য নিজে নিজেই প্র্যাকটিস শুরু করে দিয়েছে৷ আর অস্ট্রেলিয়ার সীমিত ওভারের অধিনায়ক অ্যারন ফিঞ্চ এবারের আইপিএলে বিরাট কোহলির নেতৃত্বে খেলার জন্য মুখিয়ে রয়েছেন৷

চলতি আইপিএলে মারকুটে অজি ব্যাটসম্যানকে খেলতে দেখা যাবে রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোরের হয়ে৷ ২০১৯ সালের ডিসেম্বরে অনুষ্ঠিত খেলোয়াড়দের নিলামে আরসিবি কিনেছিল অ্যারোন ফিঞ্চ, ক্রিস মরিস, ডেল স্টেইন, জোশুয়া ফিলিপ এবং ইসুরু উদানার মতো গুরুত্বপূর্ণ খেলোয়াড়কে৷ ব্যাটিং করতে সক্ষম হয়েছিল। ফিঞ্চ যোগ দেওয়ায় কোহলি এবং এবি ডি’ভিলিয়ার্সের সমৃদ্ধ আরসিবি ব্যাটিং আরও শক্তিশালী হল, এ ব্যাপারে কোনও সন্দেহ নেই৷

এএনআই-কে এক সাক্ষাৎকারে অস্ট্রেলিয়ার ওয়ান ডে এবং টি-২০ অধিনায়ক ফিঞ্চ বলেন, ‘আমি আরসিবি-র সঙ্গে যোগ দিতে অপেক্ষা করতে পারছি না। এমন একটি ফ্র্যাঞ্চাইজির হয়ে খেলার সুযোগ পেয়েছি, যেখানে বিশ্বের সেরা কিছু খেলোয়াড় রয়েছে৷ তবে চিনাস্বামীতে ঘরের মাঠে ভিড়ের সামনে খেলা হলে অবাক হয়ে হত৷ তবে সংযুক্ত আরব আমিরশাহীতে এই ফ্র্যাঞ্চাইজির প্রতিনিধিত্ব করা এখনও আমার কাছে দারুণ ব্যাপার৷’

করোনাভাইরাসের কারণে চলতি বছর আইপিএল দেশের মাটিতে হচ্ছে না৷ মার্চ মাস স্থগিত থাকা ৫৩ দিনের এই টুর্নামেন্ট হবে সংযুক্ত আরব আমিরশাহীতে৷ আইপিএল শুরু হবে ১৯ সেপ্টেম্বর৷ ফাইনাল ১০ নভেম্বর৷ ম্যাচগুলি হবে আমিরশাহীর তিন শহর দুবাই, আবুধাবি এবং শারজাতে৷

২০২০-তে রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোরের (আরসিবি) হয়ে বিরাট কোহলির নেতৃত্বে খেলা প্রসঙ্গে ফিঞ্চ বলেন, ‘বিরাটের নেতৃত্বে আমি প্রথমবারের জন্য মাঠে নামব৷ এ নিয়ে আমি খুব উচ্ছ্বসিত৷ আন্তর্জাতিক ক্রিকেট ও আইপিএলে বেশ কয়েক বছর ধরে ওর বিপক্ষে খেলছি৷ আমি জানি ও কেমন প্রতিযোগী কিন্তু এবার সতীর্থ হিসেবে ওর সঙ্গ উপভোগ করতে চাই৷’

তাঁর নেতৃত্বের দক্ষতা ফ্র্যাঞ্চাইজির জন্য কার্যকর হবে কিনা জানতে চাইলে ফিঞ্চ বলেন, ‘আমি আশা করি, আইপিএল চলাকালীন যে কোন ব্যক্তিকে সাহায্য করতে আমার অভিজ্ঞতা কাজে আসবে। এর অর্থ যদি আমি কিছুটা চাপ ছাড়তে সাহায্য করতে পারি৷ দলের জন্য যা কিছু করা দরকার তা করব৷’

প্রশ্ন অনেক: দশম পর্ব

রবীন্দ্রনাথ শুধু বিশ্বকবিই শুধু নন, ছিলেন সমাজ সংস্কারকও