নয়াদিল্লি: প্রথমবার বাজেট পেশ করলেন অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারামন। শুক্রবার দ্বিতীয় মোদী সরকারের প্রথম বাজেট পেশ করেন তিনি। এদিন তিনি বাজেট পেশ করেন ১২০ মিনিট ধরে। থামেননি একবারও। কার্যত ম্যারাথন বক্তৃতা দেন তিনি।

বক্তব্যের শুরুতেই মোদী সরকারের বিভিন্ন সাফল্যের কথা উল্লেখ করেন সীতারামন। একাধিক করিবাতর লাইন ও মনীষীদের উদ্ধৃতি বলতে শোনা যায় তাঁকে। এদিন শ্রী রামকৃষ্ণ ও স্বামী বিবেকানন্দের কথাও উল্লেখ করেন অর্থমন্ত্রী।

মহিলাদের উন্নয়নের জন্য এদিনের বাজেট বরাদ্দের কথা বলতে গিয়ে বাংলার এই দুই মনীষীকে উদ্ধৃত করেন তিনি। বলেন, ‘স্বামী বিবেকানন্দ শ্রী রামকৃষ্ণ দেবকে লেখা একটি চিঠিতে বলেচিলেন যে, ভারতের নারীদের উন্নতি না হলে বিশ্বের ভাল হওয়া অসম্ভব। একটি পাখি কখনই একটি ডানায় ভর করে উড়তে পারে না।’ এই বলে তিনি মহিলাদের জন্য নির্ধারিত করা স্কিমের কথা উল্লেখ করেন।

উর্দু কবি মজনুর হাসমির লাইনও পড়তে শোনা যায় অর্থমন্ত্রী সীতারামানকে। ভারতকে ৫ ট্রিলিয়ন ইকনমির দিকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার কথা বলতে গিয়ে তিনি বলেন, ‘ইয়াকিন হো তো কোই রাস্তা নিকলতা হ্যায়/ হাওয়া কি ওত ভি লেকার চিরাগ জ্বলতা হ্যায়।’

এছাড়া, বাজেট বক্তৃতা দেওয়ার সময় লর্ড বাসবেশ্বরকে স্মরণ করতে দেখা গেল সীতারামানকে। বার দুয়েক তিনি উল্লেখ করেছেন লর্ড বাসবেশ্বরের নাম ও তাঁর শিক্ষার কথা। তাঁকে বলতে শোনা গিয়েছে, ‘আমাদের সরকার লর্ড বাসবেশ্বেরর শিক্ষা ও তাঁর দেখানো পথ মেনে চলে। তিনি শিখিয়েছিলেন ‘কায়াকে কৈলাসা’।

লর্ড বাসবেশ্বর ছিলেন দ্বাদশ শতকের এক সমাজ সংস্কারক। তিনিই প্রথম ওয়েলফেয়ার স্টেট বা ‘কল্যান রাজ্য’-এর ধারণা দিয়েছিলেন। তিনি ভারতীয় সমাজকে নতুন দিশা দেখিয়েছিলেন। ‘সর্বোদয়’ বা সার্বিক উন্নতির আধুনিক ধারণাও তিনি দিয়েছিলেন।