স্টাফ রিপোর্টার, আলিপুরদুয়ার: কালচিনির বৈকন্ঠপুর থেকে বনকর্মীদের উদ্যোগে উদ্ধার হল ১৫টি তক্ষক। তিনজন পাচারকারী ওই তক্ষকগুলোকে ভুটানে পাচার করছিল। সেই সময় রাজ্য দপ্তরের কর্মীরা একেবারে সিনেমার কায়দায় চক্রটিকে ধরে ফেলে। জানা যায় ওই ১৫টি তক্ষকের বাজারি মূল্য প্রায় ৫০ লক্ষ টাকা।

বন দপ্তরের এই পদক্ষেপের প্রশংসা করেন ওয়াকিবহাল মহল। বেলাকোবার রেঞ্জ অফিসার সঞ্জয় দত্ত বলেন, “গোপন সূত্রে খবর পেয়ে বন দপ্তরের কর্মীরা ওই চক্রটিকে আটক করতে উদ্যোগী হয়। কয়েকজন কর্মীর একান্ত চেষ্টায় তিনজন ধরা পড়ে।” তিন ধৃতর নাম অর্জুন খড়িয়া, সুরজ এবং ফাগু খড়িয়া।

বনকর্মীদের কথায়, ধৃতদের জেরা করে জানা যায়, মূলত অসমের জঙ্গল থেকে তক্ষকগুলিকে ফাঁদ পেতে ধরা হয়েছে। স্থানীয় কিছু মানুষ এই পাচারের সঙ্গে জড়িত। পাচারচক্রের সঙ্গে জড়িতদের পুলিশের হাতে তুলে দেওয়া হয়েছে। এমন চোরা শিকারিদের উৎপাত লেগেই রয়েছে বক্সা বাঘবনে। তবে ইদানীং নানা ক্ষেত্রে বনকর্মীদের একান্ত প্রচেষ্টা অনেকের নজর কেড়েছে।

কিছুদিন আগেই ডুয়ার্সের রাজাভাতখাওয়ায় একটি সেমিনারে যোগ দিতে এসেছিলেন বনমন্ত্রী ব্রাত্য বসু। সেমিনারের মঞ্চে তিনি ঘোষণা করেন, যে কোনও বেআইনি কাজ রুখতে বন দপ্তর উদ্যোগী হবে। এবার বনমন্ত্রীর দেওয়া কথাই সত্যি হল।