ফাইল ছবি

ইসলামাবাদ: গণধর্ষণের অভিযোগ ঘিরে ক্রমে উত্তাল হয়ে উঠছে পাকিস্তান। দুই কিশোরীকে ৬ দিন ধরে অত্যাচারের প্রতিবাদে সরব হচ্ছে মানুষজন। নির্যাতিতাদের মা সরাসরি অভিযোগ জানিয়েছে, যে তাঁর দুই মেয়েকে অপহরণ করে মোট ১১ জন ব্যক্তি। এরপর তাঁদেরকে গণধর্ষণ করা হয় বলে অভিযোগ।

পাকিস্তানের জিও.টিভির রিপোর্ট জানাচ্ছে, মোট ১৫ জনের বিরুদ্ধে এই ধর্ষণের অভিযোগ আনা হয়েছে। আপাতত জানা যাচ্ছে, এই ছয় দিন নানান আলাদা আলাদা জায়গায় ওই দুই নাবালিকাকে রেখেছিল অপহরণকারীরা।

নির্যাতিতাদের মা জানিয়েছেন, ১১ সেপ্টেম্বর তাঁর মেয়েদের অপহরণ করা হয়। এই ৬ দিন তাঁর মেয়েদেরকে নেশায় আচ্ছন্ন করে রাখা হয় বলে জানিয়েছেন তিনি।

আরও পড়ুন – সীমান্তে মোতায়েন সেনাদের উদ্দেশ্যে দেশের মানুষকে কাজ করতে দিলেন মোদী

নিজের অভিযোগে নির্যাতিতার মা জানান, অভিযুক্তরা তাঁর মেয়েদের আপত্তিকর ছবি এবং ভিডিও রেকর্ডও করে। এফআইআর জানাচ্ছে, ১৫ বছরের কিশোরীকে ফয়সালাবাদের জঙ্গ বাজারে ছেড়ে দেওয়া হয় ও অপর ১৭ বছরের তাঁর দিদিকে গুজরাওয়ানায় ছেড়ে দেয় দুষ্কৃতিরা।

নির্যাতিতার মা জানিয়েছেন, এই ঘটনার পরেও একাধিকবার অভিযুক্তরা তাঁর মেয়েদেরকে উত্যক্ত করে। তিনি জানিয়েছেন অর্থনৈতিক ভাবে তাঁদের অবস্থা শোচনীয় তাই তাঁরা প্রথমে আইনী পদক্ষেপ নিতে চাইছিলেন না, তাঁরা থীক করেছিলেন তারা বাড়ি ছেড়ে অন্য কোথাও বসবাস করবে।

আরও পড়ুন – নাম ভাঁড়িয়ে বিয়ে, স্ত্রী’র অশ্লীল ভিডিও ইন্টারনেটে ছাড়ল স্বামী

যদিও পড়ে সিদ্ধান্ত বদল হয়। অন্যদিকে অপরাধীদের এখনও পুলিশ গ্রেফতার করতে পারেনি বলে জানা গিয়েছে। তবে পাক পুলিশ ঘটনার তদন্ত করছে।

জেলবন্দি তথাকথিত অপরাধীদের আলোর জগতে ফিরিয়ে এনে নজির স্থাপন করেছেন। মুখোমুখি নৃত্যশিল্পী অলোকানন্দা রায়।