জুরিখ: বিতর্ক যেন পিছু ছাড়ছে না ফিফার৷ পুরনো পদ্ধতিতেই নির্বাচিত হবেন ফিফার আগামী সভাপতি৷ যে পদ্ধতিতে নির্বাচন করে সমস্যার সম্মুখীন হতে হয়েছে, তা অপরিবর্তিতই রেখে দেওয়া হল৷ ফিফার অন্তর্বতী সভাপতি শেপ ব্লাটার এই পদ্ধতিতেই নির্বাচিত হয়েছিলেন৷ তাঁর বিরুদ্ধে ঘুষ দিয়ে ভোট কেনারও অভিযোগ উঠেছিল৷ অভিযোগ ছিল আফ্রিকা, এশিয়া, লাতিন আমেরিকা ও ক্যারিবিয়ানদের কাছ থেকে অর্থের বিনিময়ে ভোট কেনেন তিনি৷ বিশ্বের ২০৯টি ফুটবল সংস্থার মধ্যে ১৩৩ টি সংস্থার সমর্থন পেয়ে ২৯ মে পঞ্চমবারের জন্য সভাপতির আসনে বসেছিলেন ব্লাটার৷

ফিফার পরবর্তী নির্বাচনের জন্য এক্সট্রাঅর্ডিনারি নির্বাচক কমিটি তৈরি কথা বুধবারই জানানো হয়েছিল ফিফার তরফে৷ এছাড়া নির্বাচনের দিনক্ষণ ঠিক করতে জুলাইয়ে বৈঠকে বসার কথা এক্সিকিউটিভ কমিটির৷ সেসব করা হলেও নির্বাচনী পদ্ধতিতে কোনও পরিবর্তন আনা হচ্ছে না৷ ফিফার আগামী সভাপতির পদে দাঁড়াতে হলে সেই ব্যক্তিকে পাঁচটি জাতীয় সংস্থার লিখিত সম্মতি পেতে হবে৷ ফিফা অনুমোদিত ২০৯টি ফুটবল সংস্থা সভাপতি নির্বাচনের ক্ষেত্রে একটি করে ভোট দেওয়ার সুযোগ পাবে৷