স্টাফ রিপোর্টার, বালুরঘাট: দক্ষিণ দিনাজপুরের পঞ্চাশ শতাংশ কৃষককেও সমবায় আন্দোলনের সঙ্গে যুক্ত করা যায়নি। জেলায় যতজন কৃষক রয়েছেন এ পর্যন্ত তার মাত্র পঁচিশ শতাংশ কৃষককে কৃষি ঋণের সুবিধা পাইয়ে দেওয়া সম্ভব হয়েছে। ৬৬তম সমবায় সপ্তাহের সমাপ্তি অনুষ্ঠানে এই তথ্যই প্রকাশ পেলো।

বুধবার বালুরঘাটের নাট্যতীর্থ মঞ্চে নিখিল ভারত সমবায় সপ্তাহ উদযাপনের সমাপ্তি অনুষ্ঠান আয়োজিত হয়। গত ১৪ নভেম্বর থেকে শুরু হয় সমবায় সপ্তাহ এবারে দক্ষিণ দিনাজপুরের প্রতিটি ব্লকেই পালিত হয়েছে। দক্ষিণ দিনাজপুর জেলা কেন্দ্রীয় সমবায় ব্যাংকের পরিচালনায় এই অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন চেয়ারম্যান বিপ্লব খাঁ ও জেলা এআরসিএস শৌনক ব্যানার্জী ও জেলা উদ্যানপালন দফতরের আধিকারিক সমরেন্দ্রনাথ খাড়া সহ অনেকেই।

এদিনের অনুষ্ঠানে উপস্থিত অ্যাসিস্ট্যান্ট রেজিস্টার ও কো-অপারেটিভ শৌনক ব্যানার্জী জানিয়েছেন যে, সমবায় আন্দোলনে দক্ষিণ দিনাজপুর বরাবরই উল্লেখযোগ্য ভূমিকা পালন করে এসেছে। সমবায়ের সঙ্গে যুক্ত সদস্য ও গোষ্ঠীগুলোকে আরও বেশি করে আন্দোলনমুখী হওয়া উচিত।

তিনি সমবায়ের সঙ্গে কৃষকদের সম্পর্কের কথা বলতে গিয়ে জানিয়েছেন, এখনও পর্যন্ত মাত্র আশি হাজার কৃষকদের সমবায় গুলি থেকে কৃষিঋণ দেওয়া সম্ভব হয়েছে। জেলার মোট কৃষক সংখ্যার অনুপাতে যা মাত্র কুড়ি থেকে পঁচিশ শতাংশ। গত বছরে যা ছিল পনেরো থেকে কুড়ি শতাংশ মাত্র। এই ব্যাপারে ব্যর্থতার কথা স্বীকার করে তিনি বলেন, এখানে মেম্বারশিপ কভারেজের ক্ষেত্রে বেশ কিছু খামতি রয়ে গিয়েছে। সেই সঙ্গে তিনি একথাও বলেন আগামী এক বছরে মধ্যে সংখ্যাটা এক লক্ষে পৌঁছে দেওয়ার লক্ষ্যমাত্রা নেওয়া হয়েছে।