টোকিও: ১৮ বছরের দীর্ঘ পেশাদার ফুটবল কেরিয়ারে ইতি টানলেন স্পেনের বিশ্বকাপজয়ী তারকা ফার্নান্দো তোরেস৷ শুক্রবার সোশ্যাল মিডিয়ায় নিজের অবসরের কথা ঘোষণা করেন ৩৫ বছর বয়সি স্প্যানিশ তারকা৷ যদিও খেলা ছাড়ার সিদ্ধান্তের পিছনে এখনই কোনও কারণ জানননি তিনি৷ তবে আগামী রবিবার টোকিওর সাংবাদিক সম্মেলনে এই বিষয়ে বিস্তারিত জানাবেন বলে টুইট করেছেন তোরেস৷

আরও পড়ুন: গোল পেলেন স্যাঞ্চেজ, কোপায় শুরুতেই বড় জয় ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়নদের

টুইটারে একটি ভিডিও বার্তায় তোরের জানান, ‘খুব গুরুত্বপূর্ণ একটা ঘোষণা রয়েছে৷ রোমাঞ্চকর ১৮ বছরের পর আমার ফুটবল কেরিয়ারে ইতি টানার সময় এসেছে৷ পরের রবিবার, ২৩ জুন জাপানের স্থানীয় সময় সকাল ১০টায় টোকিওয় আমি সাংবাদিক সম্মেলনে এই নিয়ে বিস্তারিত জানাব৷ সেখানেই দেখা হবে৷’

তোরেস গত বছর অ্যাটলোটিকো মাদ্রিদ ছেড়ে জে লিগের দল সাগান তোসুতে যোগ দেন৷ আপাতত সেখানেই রয়েছেন তিনি৷ সেকারণেই টোকিওয় সাংবাদিক সম্মেলন করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন চেলসি, লিভারপুল ও এসি মিলানের প্রাক্তন তারকা৷

আরও পড়ুন: জয় অধরা মেসিদের, ছিটকে যাওয়ার আশঙ্কা কোপা থেকে

২০০১ সালে ১৭ বছর বয়সে অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদের হয়ে সিনিয়র ফুটবলে আত্মপ্রকাশ করেন তোরেস৷ ২০০৭ পর্যন্ত সেখানেই ছিলেন তিনি৷ ২০০৭ থেকে ২০১১ পর্যন্ত প্রিমিয়র লিগ ক্লাব চেলসির হয়ে মাঠে নামেন স্প্যানিশ তারকা৷ তর পর ২০১৫ পর্যন্ত তিনি চেলসির জার্সিতে মাঠে নামেন৷ মাঠে কয়েক মাস মিলানে কাটানোর পর পুনরায় অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদে ফিরে আসেন তোরেস৷ গত বছর জাপানে পাড়ি দেওয়ার পর অবশেষে ফুটবলকে বিদায় জানানোর সিদ্ধান্ত নেন ক্লাব কেরিয়ারে ৬০০’র বেশি ম্যাচ খেলা

আরও পড়ুন: সুয়ারেজদের আটকে কোপা জমিয়ে দিল ‘অতিথি’ জাপান

স্পেনের প্রায় সব বয়সভিত্তিক দলের হয়ে প্রতিনিধিত্ব কার তোরেস সিনিয়র ফুটবলে জাতীয় দলের হয়ে ১১০টি ম্যাচ খেলেছেন৷ ২০০৩ থেকে ২০১৪ পর্যন্ত ১১ বছরের দীর্ঘ আন্তর্জাতিক কেরিয়ারে তিনি গোল করেছেন ৩৮টি৷ স্পেনের ২০১০ বিশ্বকাপ জয়ের পিছনে গুরুত্বপূর্ণ অবদান ছিল তোরেসের৷ ২০১২ ইউরো কাপের সর্বোচ্চ স্কোরার ছিলেন তিনি৷