ঢাকা: সিসিটিভি দেখাচ্ছে এক মহিলা কে সাদরে বরণ করছেন জেল কর্তৃপক্ষ। তিনি আবার ‘স্পেশাল গেস্ট’। ওই মহিলারা সঙ্গে সময় কাটালেন বাংলাদেশের আলোচিত আর্থিক কেলেঙ্কারির অন্যতম আসামী তথা হলমার্ক গোষ্ঠীর জেনারেল ম্যানেজার তুষার আহমেদ।

কী করে আইন ভেঙে জেলের ভিতর ‘নারীসঙ্গ’ সম্ভব এই নিয়ে তোলপাড় শুরু হয়েছে। অভিযোগ ওই মহিলা গেস্টের সঙ্গে খোদ কারা কর্তৃপক্ষের কক্ষেই বেশ কিছু সময় কাটানোর ঘটনা ঘটায় তুষার আহমেদ।
বাংলাদেশের চাঞ্চল্যকর হলমার্ক কেলেঙ্কারি ৩ হাজার ৬৯৯ কোটি ৪১ লক্ষ টাকা আত্মসাতের সাজাপ্রাপ্ত তুষার। সংস্থার জিএম এই ব্যক্তির বিরুদ্ধে কারা কর্মকর্তার কক্ষে নারীসঙ্গের অভিযোগে কাশিমপুর কারাগারের ডেপুটি জেলারসহ তিন জনকে সাসপেন্ড করা হবে।

বাংলাদেশ কারা মহাপরিদর্শক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মহ. মোমিনুর রহমান মামুন জানান, তদন্তের স্বার্থে যে কোনও ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাকেও প্রয়োজনে অতি দ্রুত প্রত্যাহার করা হবে।

জেলের সিসিটিভি তে ধরা পড়েছে ওই মহিলার প্রবেশ ও বেরিয়ে যাওয়া। আশ্চর্যজনক ঘটনা জেলের ভিতর তার উপস্থিতি নিয়ে কোনও ফুটেজ বের হয়নি। তবে একাধিক জেল কর্মীর বয়ান, রীতিমতো নারীসঙ্গ করেছে আর্থিক জালিয়াত তুষারপাত আহমেদ।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

জীবে প্রেম কি আদৌ থাকছে? কথা বলবেন বন্যপ্রাণ বিশেষজ্ঞ অর্ক সরকার I।