কলকাতা: সত্যজিৎ রায়ের শতবর্ষ চলছে। তাই এবার এক অভিনব ভাবে ছবি তৈরির উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। যেখানে একই ছবিতে সত্যজিৎ রায়ের জনপ্রিয় দুই চরিত্র ফেলুদা এবং প্রফেসর শঙ্কুকে নিয়ে আসা ‌ হচ্ছে।

এসভিএফ প্রযোজনা সংস্থা এমন উদ্যোগ নিয়েছে। ছবিটির পরিচালনার দায়িত্বে থাকছেন সন্দীপ রায় বলে একটি বহুল প্রচলিত জনপ্রিয় সংবাদপত্রে প্রতিবেদনে বেরিয়েছে।

ওই প্রতিবেদন অনুসারে শঙ্কুর চরিত্র ধৃতিমান চট্টোপাধ্যায় মোটামুটি চূড়ান্ত বলে জানা গেলেও নতুন এই ছবিটিতে ফেলুদা কে হচ্ছেন তা এখনও জানা যায়নি। করোনা পরিস্থিতি এমনিতেই গত কয়েক মাস ধরে শুটিং ঠিকমতো হচ্ছে না। বেশ কিছুদিন পুরোপুরি বন্ধ থাকার পর এখন কিছুটা ধীরগতিতে তা চালু হয়েছে।

সেই পরিস্থিতিতে ফেলুদাও শঙ্কুকে একসঙ্গে নিয়ে ছবি করার উদ্যোগের আলাদা একটা তাৎপর্য রয়েছে ‌। তবে ফেলুদা এবং শঙ্কুকে এক ছবিতে নিয়ে আসা সহজ কাজ হবে না ।

ফলে ছবিটির এক অর্ধে ফেলুদা তো অন্য অর্ধে শঙ্কু- এমনটাই ভাবনা চিন্তা করা হয়েছে। তবে এই বিষয়ে কাহিনি নির্বাচনও চূড়ান্ত হয়নি।

তাছাড়া এই করোনা পরিস্থিতি বিদেশে শুটিং করার সমস্যা রয়েছে। যদিও ফেলুদার গল্প খুব বেশি বিদেশে না হলেও শঙ্কুর বেশিরভাগ গল্প বিদেশের পটভূমিতে।

এই পরিস্থিতিতে তাই শঙ্কুর প্রথম দিককার গল্পগুলি যা গিরিডি ভিত্তিক তার ভাবা হচ্ছে। সব কিছু যদি স্বাভাবিকের দিকে যায় আপাতত চিন্তা ভাবনা করা হয়েছে ২০২১ সালের গরমের ছুটির সময় এই ছবিটি রিলিজ করানোর।

জেলবন্দি তথাকথিত অপরাধীদের আলোর জগতে ফিরিয়ে এনে নজির স্থাপন করেছেন। মুখোমুখি নৃত্যশিল্পী অলোকানন্দা রায়।