মেলবোর্ন: বছরের প্রথম গ্র্যান্ড স্ল্যাম অস্ট্রেলিয়ান ওপেনের তৃতীয় রাউন্ডে সুইস কিংবদন্তী রজার ফেডেরার। গত ২০ বছর ধরে মেলবোর্ন পার্কে কখন তৃতীয় রাউন্ডের ম্যাচের আগে টুর্নামেন্ট থেকে বিদায় নেননি সুইজারল্যান্ডের টেনিস মায়েস্ত্রো। ২০২০ অস্ট্রেলিয়ান ওপেনেও অক্ষত রাখলেন সেই রেকর্ড। অর্থাৎ, সার্বিয়ান প্রতিদ্বন্দ্বীকে হারিয়ে টানা ২১ বার রড লেভার এরিনায় দ্বিতীয় রাউন্ডের বাধা টপকালেন রজার।

বুধবার সার্বিয়ার ফিলিপ ক্রাজিনোভিচকে স্ট্রেট সেটে উড়িয়ে দিয়ে অস্ট্রেলিয়ান ওপেনের তৃতীয় রাউন্ডে পা রাখলেন ২০টি গ্র্যান্ড স্ল্যাম জয়ের মালিক। সুইস তারকার পক্ষে ম্যাচে ফল ৬-১, ৬-৪, ৬-১। প্রথম সেটে এদিন মাত্র ১৩ মিনিটের মধ্যে ৪-০ ব্যবধানে এগিয়ে যান ফেডেরার। কার্যত ব্যাকফুটে চলে যাওয়া ক্রাজিনোভিচের ফেরার আর কোনও রাস্তা খোলা ছিল না। একটি গেম জিততে সক্ষম হলেও ১-৬ ব্যবধানে ফেডেরারের কাছে অসহায় আত্মসমর্পণ করেন সার্বিয়ান প্রতিদ্বন্দ্বী।

আরও পড়ুন: বিপক্ষকে ফটোসেশনে ডেকে ‘স্পিরিট অফ ক্রিকেট’র দৃষ্টান্ত গড়ল ভারত

প্রথম সেটের তুলনায় দ্বিতীয় রাউন্ডে কিছুটা প্রতিরোধ গড়ে তোলেন ফেডেরারের প্রতিদ্বন্দ্বী। কিন্তু সুইস তারকার অভিজ্ঞতা, ক্রস-কোর্ট ফোরহ্যান্ডের কোনও উত্তর এখনও রপ্ত করে উঠতে পারেননি বিশ্বের ৪১ নম্বর। তাই ক্রাজিনোভিচ ৪-৪ সমতা ফিরিয়ে আনলেও শেষমেশ ৬-৪ ব্যবধানে দ্বিতীয় সেট নিজের নামে করে নেন টুর্নামেন্টের তৃতীয় বাছাই ফেডেরার। এরপর তৃতীয় সেটের শুরুতেই সার্বিয়ান প্রতিদ্বন্দ্বীর সার্ভিস ব্রেক করেন সুইস তারকা।

আরও পড়ুন: বিগ ব্যাশে দুর্ঘটনা, ফিল্ডারের সঙ্গে সংঘর্ষে হাসপাতালে ব্যাটসম্যান

দুই সেটে পিছিয়ে পড়া ক্রাজিনোভিচ আবার তৃতীয় সেটে চোট পেয়ে বসেন ২-১ পিছিয়ে থাকা অবস্থায়। মেডিক্যাল টাইম-আউটের জন্য কিছুক্ষণ বন্ধ থাকে খেলা। স্বাভাবিকভাবেই যোজন এগিয়ে থাকা ফেডেরারের জন্য এরপর ম্যাচ জয় ছিল শুধু সময়ের অপেক্ষা। ডান হাতের চোট সারিয়ে কোর্টে ফিরে এসে আর গেমের মুখ দেখেননি ফেডেরারের সার্বিয়ান প্রতিদ্বন্দ্বী। টানা চারটি গেম জিতে এরপর ম্যাচ মুঠোয় নিয়ে নেন ছ’বারের অস্ট্রেলিয়ান ওপেন জয়ী। সপ্তমবার রড লেভার এরিনায় খেতাব জয়ের লক্ষ্যে তৃতীয় রাউন্ডে অস্ট্রেলিয়ারই জন মিলম্যানের মুখোমুখি হবেন ফেডেক্স।

প্রশ্ন অনেক: দশম পর্ব

রবীন্দ্রনাথ শুধু বিশ্বকবিই শুধু নন, ছিলেন সমাজ সংস্কারকও