লন্ডন: অল ইংল্যান্ড ক্লাবের কোর্টে অব্যাহত রজারের আধিপত্য! স্লোভাকিয়ান লুকাস লাকোকে স্ট্রেট গেমে উড়িয়ে দিয়ে তৃতীয় রাউন্ডে উঠলেন রজার ফেডেরার৷ সেই সঙ্গে নবম উইম্বলডন খেতাব জয়ের দিকে আরও এক পা এগোলেন ঘাসের কোর্টে রাজা রজার৷ বিশ্বের ৭৩ নম্বর স্লোভাকিয়ান খেলোয়াড়কে ৮৯ মিনিটের লড়াইয়ে ৬-৪, ৬-৪, ৬-১ সেটে হারিয়ে ম্যাচ জিতে নেন সদ্য প্রাক্তন বিশ্বের এক নম্বর৷

গতবারের চ্যাম্পিয়ন রজার এদিনের জয়ের ফলে অল ইংল্যান্ড ক্লাবে টানা ২৬টি সেট জিতলেন৷ ম্যাচ জিতে উঠে ফেডেরার বলেন, ‘দারুণ লাগছে৷ প্রথম রাউন্ডে কিছুটা নার্ভাস ছিলাম৷ লাকোও ঘাসের কোর্টে ভালো খেলে৷ বেশ কয়েকটি ম্যাচ জিতেছে৷ প্রথম দিকে ম্যাচ গুলিতে খুব বেশি এনার্জি নষ্ট না-করে জেতায় আমি খুশি৷’

নিজের সার্ভিসে টানা ৩৫টি স্ট্রেট পয়েন্ট জিতলেন রজার৷ আর এর ফলেই সহজেই লাকোকে হারিয়ে উইম্বলডনের তৃতীয় রাউন্ডে পৌঁছন ফেডএক্স৷ আটবারের চ্যাম্পিয়ন রজারের বিরুদ্ধে প্রথম দু’টি সেটে কিছুটা লড়াই করলেও তৃতীয় সেটে দাঁড়াতেই পারেননি স্লোভাকিয়ান খেলোয়াড়৷

এবার উম্বলডনে চ্যাম্পিয়ন হলে দ্বিতীয় খেলোয়াড় হিসেবে অল ইংল্যান্ড ক্লাবে ৯ বার সিঙ্গলস খেতাব জিতবেন ফেডেরার৷ এখন পর্যন্ত এই রেকর্ড রয়েছে মহিলা তারকা মার্টিনা নাভ্রাতিলোভার দখলে৷

মহিলা সিঙ্গলসে এদিন প্রথম অঘটন ঘটে৷ দ্বিতীয় রাউন্ডে বিদায় নিলেন অস্ট্রেলিয়ান ওপেন চ্যাম্পিয়ন ক্যারোলিন ওজনিয়াকি৷ বিশ্বের ৩৫ নম্বর রুশ তারকা একাতেরিনা মাকারোভার কাছে হারেন দ্বিতীয় বাছাই ওজনিয়াকি৷ সাতাশ বছরের ড্যানিশ মহিলাকে ৬-৪, ১-৬, ৭-৫ হারিয়ে তৃতীয় রাউন্ডে ওঠেন মাকারোভা৷

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

করোনা পরিস্থিতির জন্য থিয়েটার জগতের অবস্থা কঠিন। আগামীর জন্য পরিকল্পনাটাই বা কী? জানাবেন মাসুম রেজা ও তূর্ণা দাশ।