কলকাতা: ফেডারেশনের নমনীয় মনোভাব আশার সঞ্চার করেছিল আগেই। বুধবার সর্বভারতীয় ফুটবল ফেডারেশনের তরফ থেকে অফিসিয়াল ভাবে মেল করে ক্লাবকে জানিয়ে দেওয়া হল প্লেয়ার্স স্ট্যাটাস কমিটির  চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত। সেখানে মোটা অঙ্কের জরিমানায় ইস্টবেঙ্গলের উপর থেকে ট্রান্সফার নিষেধাজ্ঞা তুলে নিল সর্বভারতীয় ফুটবল ফেডারেশন।

মরশুম শুরুর ঠিক আগে গতবারের আই লিগ চ্যাম্পিয়ন মিনার্ভা পঞ্জাবের ফুটবলার সুখদেব সিংকে অবৈধভাবে নিজেদের দলে নেওয়ার অভিযোগ উঠেছিল লাল-হলুদের বিরুদ্ধে। সুখদেবের সঙ্গে মিনার্ভার দু’বছরের চুক্তি থাকলেও ক্লাব অফিসিয়ালদের সঙ্গে কোনওরকম যোগাযোগ না করে তাঁকে দলে নেওয়ার অভিযোগ উঠেছিল ইস্টবেঙ্গলের বিরুদ্ধে। সুখদেবের এজেন্ট মারফৎ গোটা ঘটনাটি সম্পন্ন হয়েছিল বলে জানা যায়। এক্ষেত্রে ট্রান্সফার ফি বাবদ কোনও অর্থই পায়নি মিনার্ভা পঞ্জাব। গোটা ঘটনায় ক্ষুব্ধ মিনার্ভা দ্বারস্থ হয় ফেডারেশনের প্লেয়ার্স স্ট্যাটাস কমিটির।

ঘটনায় ইস্টবেঙ্গলকে দোষী সাব্যস্ত করে তাঁদের উপর ট্রান্সফার নিষেধাজ্ঞা জারি করেছিল ফেডারেশন নিযুক্ত প্লেয়ার্স স্ট্যাটাস কমিটি। এর ফলে আগামী জানুয়ারিতে ট্রান্সফার উইন্ডোতে কোনও স্বদেশী বা বিদেশী ফুটবলার দলে নিতে না পারার কারণে মাথায় হাত পড়ে লাল-হলুদ কর্মকর্তা থেকে সমর্থকদের। পাশাপাশি মিনার্ভার সঙ্গে চুক্তিবদ্ধ হওয়ার পরও অবৈধ উপায়ে ইস্টবেঙ্গলের সঙ্গে চুক্তিবদ্ধ হওয়ায় জরিমানা করা হয় সুখদেব সিংকেও। এমনকি চার মাসের নির্বাসনেও পাঠানো হয় তাঁকে। পরবর্তীতে ট্রান্সফার নিষেধাজ্ঞা ইস্যুতে ফেডারেশনের দ্বারস্থ হয় ইস্টবেঙ্গল।

গত শুক্রবার ফেডারেশনের আপিল কমিটির সঙ্গে এই বিষয়ে বৈঠকে বসেন ইস্টবেঙ্গল কর্তারা। বৈঠকে ট্রান্সফার সংক্রান্ত বিষয়ে চূড়ান্ত কোনও সিদ্ধান্ত গৃহীত না হলেও ফেডারেশনের কিছুটা নমনীয় মনোভাব প্রকাশ পায়। তবে মোটা অঙ্কের জরিমানা যে হচ্ছেই, সেবিষয়ে একটা আগাম ধারণা পাওয়া যায়।

অবশেষে বুধবার ফেডারেশনের প্লেয়ার্স স্ট্যাটাস কমিটির চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত অনুযায়ী স্বস্তি লাল-হলুদ শিবিরে। জানুয়ারিতে দ্বিতীয় ট্রান্সফার উইন্ডোতে দলে নেওয়ার বিষয়ে বেশ কয়েকজন বিদেশী ধরা পড়েছিল ইস্টবেঙ্গল কর্মকর্তাদের র‍্যাডারে। কিন্তু ট্রান্সফার ব্যানের গেরোয় নতুন বিদেশী ফুটবলার নেওয়ার বিষয়টি ছিল বিশ বাঁও জলে। তবে জরিমানার পরিবর্তে ট্রান্সফার ইস্যুতে নিষেধাজ্ঞা উঠে যাওয়ায় এবার ষষ্ঠ বিদেশী দলে নেওয়ার ক্ষেত্রে আর কোনও বাধা রইল না।