স্টাফ রিপোর্টার, কাটোয়া: উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষার প্রস্তুতি ঠিকমতো না হওয়ায় হতাশায় আত্মঘাতী হলেন উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষার্থী৷ মৃতের নাম হৃত্বিক গড়াই (১৮)৷ বাড়ি পূর্ব বর্ধমানের কাটোয়ার পলসোনা এলাকায়৷

কাটোয়া ভারতী ভবন উচ্চ বিদ্যালয়ের বিজ্ঞান বিভাগের ছাত্র ছিল হৃত্বিক৷ কাটোয়া কাশীরাম দাস ইন্সটিটিউশনে পরীক্ষার সিট পড়েছিল৷ মৃতের পরিবার সূত্রে জানা গিয়েছে, মাধ্যমিকে ভালো ফল করেছিল হৃত্বিক৷ ৮৪ শতাংশ নম্বর ছিল তার মাধ্যমিকের ফলাফলে৷

আরও পড়ুন: কামরায় ধোঁয়া থেকে আগুনের আতঙ্ক শতাব্দী এক্সপ্রেসে

পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, সোমবার রাতে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করে ওই পড়ুয়া৷ পুলিশের প্রাথমিক অনুমান, পরীক্ষার প্রস্তুতি ঠিকমতো না হওয়ার হতাশার জেরেই সে আত্মহত্যা করেছে৷ মনোবিদদের ধারণা, পরীক্ষার ভয়, কিম্বা অসফল হওয়ার আতঙ্ক তাড়া করছিল ওই ছাত্রকে৷ ফলে, পরীক্ষা শুরুতেই নিজের প্রাণ দিয়ে ‘পরীক্ষা আতঙ্ক’ মুছল কাটোয়ার হৃত্বিক গড়াই৷

পড়ার চাপ কিম্বা, মানুসিক অসুস্থতার কারণে দিন দিন পড়ুয়াদের মধ্যে আত্মহত্যার প্রবণতা বাড়ছে৷ এর কারণ হিসাবে বিভিন্ন সময় বিভিন্ন মতামত উঠে এলেও থামেনি আত্মহত্যার প্রবণতা৷ বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার হিসেব মতে, সারা বিশ্বে বর্তমানে প্রতি বছর গড়ে দশ লক্ষ মানুষ আত্মহত্যা করেন৷ আর যারা আত্মহত্যা করবার চেষ্টা করে কোনও-না-কোনও কারণে ব্যর্থ হয়, তাঁদের সংখ্যা আত্মহত্যাকারীদের ২০ গুণ৷ আত্মহত্যার হার সবচেয়ে বেশি পূর্ব-ইউরোপের দেশগুলোতে এবং সবচেয়ে কম ল্যাটিন আমেরিকায়৷

আরও পড়ুন: নাবালিকাকে যৌন হেনস্থার অভিযোগে গ্রেফতার প্রৌঢ়