পানাজি: মরশুমের প্রথম ম্যাচে নর্থ-ইস্ট ইউনাইটেডের কাছে অপ্রত্যাশিত হার দিয়ে অভিযান শুরু করেছে ‘হট ফেভারিট’ মুম্বই সিটি এফসি। অন্যদিকে থ্রিলার ম্যাচে বেঙ্গালুরু এফসি’র বিরুদ্ধে পিছিয়ে পড়েও ২-২ ড্র করেছে এফসি গোয়া। ফতোরদা স্টেডিয়ামে বুধের সন্ধেয় মুখোমুখি এফসি গোয়া বনাম মুম্বই সিটি এফসি। অর্থাৎ, মুম্বই সিটি এফসি কোচ সার্জিও লোবেরা মাঠে নামছেন তাঁর পুরনো দলের বিরুদ্ধে। শুধু লোবেরাই নন, মুম্বই আক্রমণে ভরসার অন্যতম নাম হুগো বোউমাস কিংবা রক্ষণের ভরসা মোর্তাদা ফল অথবা দেশের তারকা সাইড-ব্যাক মন্দার রাও দেশাইয়েরও পুরনো দল এফসি গোয়া।

এফসি গোয়ার ক্ষেত্রে প্রথম ম্যাচে জোড়া গোলে দলের আস্থাভাজন হয়েছেন ইগর আঙ্গুলো। বোউমাস, কোরোমিনাসহীন গৌরদের প্রথম ম্যাচে ভরসা জুগিয়েছেন এই স্প্যানিশ স্ট্রাইকার। কোরোমিনাসের পরিবর্ত হিসেবে লিগের বাকি সময়টাও আঙ্গুলোর কাঁধে গুরুদায়িত্ব। সবমিলিয়ে পুরনো কোচ এবং তাঁর টিমকে বুধের সন্ধেয় চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে দিতে মরিয়া গোয়া।

অন্যদিকে প্রাধান্য নিয়ে খেলেও প্রথম ম্যাচে হাইল্যান্ডারদের বিরুদ্ধে হতাশাজনক ফলাফল ঝেড়ে ফেলে জয়ে ফিরতে মরিয়া লোবেরা অ্যান্ড কোম্পানি। পাশাপাশি গোয়ার বিরুদ্ধে মাঝমাঠের তারকা আহমেদ জাহৌর সার্ভিস পাচ্ছে না আইল্যান্ডাররা। যা বেশ চিন্তার কারণ লোবেরার কাছে। উল্লেখ্য, মরক্কোন জাহৌও লোবেরার অধীনে গত মরশুমে খেলেছেন এফসি গোয়ার হয়ে। সবমিলিয়ে এফসি গোয়ার দায়িত্ব ছাড়ার পর লোবেরার মুম্বই সিটি এফসি বনাম এফসি গোয়ার লড়াই ঘিরে পারদ তুঙ্গে। গতবারের লিগ শিল্ড উইনাররা যেমন হোম ম্যাচে জয়ে ফিরতে মরিয়া, তেমনই তারকাখোচিত মুম্বইও প্রথম জয় পেতে মুখিয়ে এই ম্যাচে।

এফসি গোয়া সম্ভাব্য একাদশ: মহম্মদ নওয়াজ, ইভান গঞ্জালেস, জেমস দোনাচি, স্যানসন পেরেরা, সেরিটন ফার্নান্দেজ, প্রিন্সটন রেবেলো, এদু বেদিয়া, লেনি রডরিগেজ, ইগর আঙ্গুলো, জর্জ ওর্তিজ, সেইমিনলেন দোঙ্গেল।

মুম্বই সিটি এফসি সম্ভাব্য একাদশ: অমরিন্দর সিং, হার্নান সান্তানা, সার্থক গোলুই, মন্দার রাও দেশাই, মহম্মদ রাওকিপ, হুগো বোউমাস, ফারুখ চৌধুরি, রাওলিন বোর্জেস, বার্থোলোমিউ ওগবেচে, রেনিয়ার ফার্নান্দেজ, অ্যাডাম লে ফন্ড্রে।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

করোনাকালে বিনোদন দুনিয়ায় কী পরিবর্তন? জানাচ্ছেন, চলচ্চিত্র সমালোচক রত্নোত্তমা সেনগুপ্ত I