কলকাতা২৪x৭: আইএসএলের গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচে বৃহস্পতিবার ফতোরদা স্টেডিয়ামে এফসি গোয়া মুখোমুখি হতে চলেছে জামশেদপুর এফসি’র। লিগে লড়াইটা চার বনাম ছ’য়ের। প্রথম পর্বের ম্যাচে এগিয়ে গিয়েও ইগর আঙ্গুলোর অতিরিক্ত সময়ের গোলে ম্যাচ হারতে হয়েছিল জামশেদপুরকে। প্রথম পর্বের শেষে গোয়া দাঁড়িয়ে ১৫ পয়েন্টে আর জামশেদপুরের সংগ্রগে ১৩ পয়েন্ট। তাই যে দল আজকের ম্যাচে জিতবে টপ ফোরের দিকে বেশ কিছুটা এগোবে। যদিও এরপর হাতে থাকবে ন’টি ম্যাচ।

১৫ পয়েন্ট নিয়ে চতুর্থস্থানে থাকলেও গতবারের লিগ শিল্ড উইনার গোয়ার থেকে সেরাটা এখনও পাওয়া যায়নি টুর্নামেন্টে। এখনও অবধি দলের খেলায় পুরোমাত্রায় খুশি নন কোচ জুয়ান ফেরান্দো। গত ম্যাচে ইস্টবেঙ্গলের বিরুদ্ধে পিছিয়ে পড়ে ড্র করেছে গোয়া। জামশেদপুর ম্যাচের আগেরদিন গোয়ার স্প্যানিশ কোচ বলছেন, ‘আমরা নিজেদের খেলায় পুরো খুশি নই। তবে এখন ধীরে ধীরে পদক্ষেপ নিতে হবে। প্রত্যেকটা ম্যাচ এখন গুরুত্বপূর্ণ। আপাতত একটা করেই ম্যাচ আমরা ভাবব। আগামীকালের ম্যাচ আমাদের কাছে ভীষণ গুরুত্বপূর্ণ।’ ডিফেন্সের মনোসংযোগে অভাব গোয়ার জয়ে মাঝেমধ্যে কাঁটা হয়ে দাঁড়াচ্ছে। ১০ ম্যাচের মধ্যে আটটি ম্যাচে প্রথমে তারা গোল হজম করেছে।

অন্যদিকে জামশেদপুর নেরিজাস ভালস্কিসের পাশে আরেকজন স্কোরার খুঁজছে। গত ম্যাচে কেরালার কাছে ২-৩ হারতে হয়েছে তাদের। আজকের ম্যাচ জিতলে ১৬ পয়েন্ট নিয়ে লিগ টেবিলে তিনে উঠে আসার হাতছানি রেড মাইনার্সদের কাছে। লিথুয়ানিয়ান স্ট্রাইকার ভালস্কিস এখনও অবধি দলের ১২টি গোলের মধ্যে একাই ৮টি গোল করেছেন। তবে গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচের আগে গোয়া কোচ ফেরান্দোর ভাবনায় কেবল ভালস্কিস নন, গোটা জামশেদপুর দলটাই।

স্প্যানিশ কোচের কথায়, ‘আমি আমার স্কোয়াডে বিশ্বাস করি। যে কোনও দলের বিরুদ্ধে আমরা দল হিসেবে পরিকল্পনা করি এবং ম্যাচ খেলি।’

একনজরে দেখে নেওয়া যাক দু’দলের সম্ভাব্য একাদশ-

এফসি গোয়া সম্ভাব্য প্রথম একাদশ: মহম্মদ নওয়াজ (গোলরক্ষক), ইভান গঞ্জালেস, জেমস দোনাচি, সেরিটন ফার্নান্দেজ, সেভিয়ার গামা, জর্জ মেন্দোজা, ব্র্যান্ডন ফার্নান্দেজ, প্রিন্সটন রেবেলো, আলেকজান্ডার জেসুরাজ, এডু বেদিয়া, ইগর আঙ্গুলো।

জামশেদপুর এফসি সম্ভাব্য প্রথম একাদশ: টিপি রেহনেশ (গোলরক্ষক), জয়নার লরেন্সো, রিকি লালময়ামা, পিটার হার্টলে, স্টিফেন এজে, আইতর মনরয়, অ্যালেক্স লিমা, জ্যাকিচাঁদ সিং, মহম্মদ মোবাসির, নেরিজাস ভালস্কিস, অনিকেত যাদব।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

কোনগুলো শিশু নির্যাতন এবং কিভাবে এর বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ানো যায়। জানাচ্ছেন শিশু অধিকার বিশেষজ্ঞ সত্য গোপাল দে।