পানাজি: প্রথম ম্যাচে আল রায়ান এফসি এবং দ্বিতীয় ম্যাচে আল ওয়াহদার বিরুদ্ধে দুর্গ অক্ষত রেখে আত্মপ্রকাশেই মুগ্ধ করেছিল এফসি গোয়া। যদিও এএফসি চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ইতিহাসে দেশের প্রথম দল হিসেবে গোয়ার প্রথম গোল পাওয়ার অপেক্ষা দীর্ঘায়িত হয়েছিল। অবশেষে মঙ্গলবার গ্রুপ পর্বের তৃতীয় ম্যাচে এল সেই মাহেন্দ্রক্ষণ। প্রথম ভারতীয় ক্লাব হিসেবে এএফসি চ্যাম্পিয়নে লিগে প্রথম গোল তুলে নিল এফসি গোয়া।

মঙ্গলবার ফতোরদার নেহরু স্টেডিয়ামে চ্যাম্পিয়ন্স লিগে এফসি গোয়ার হয়ে প্রথম গোল করে ইতিহাসে নাম তুললেন অধিনায়ক এডু বেদিয়া। তবে ইতিহাস গড়ার দিনে জয় এল না এফসি গোয়ার। নিঃসন্দেহে প্রথম দু’টো ম্যাচের পারফরম্যান্সের নিরিখে আশায় বুক বেঁধেছিলেন ভারতীয় ফুটবল সমর্থকেরা। কিন্তু ফিফা র‍্যাংকিং’য়ে ৩১ এবং এএফসি ক্রমতালিকায় শীর্ষস্থানীয় দেশ ইরানের ক্লাবের সঙ্গে ফারাক তো থাকবেই। স্বাভাবিকভাবে এদিন পার্সেপোলিসের বিরুদ্ধে এগিয়ে গিয়েও ম্যাচ হারতে হল গৌরদের।

উল্লেখযোগ্যভাবে এদিন ম্যাচের ১৪ মিনিটে গ্রুপের সবচেয়ে শক্তিশালী দলের বিরুদ্ধে লিড নিয়ে নেয় জুয়ান ফেরান্দোর দল। ম্যাচের গতির খানিকটা বিরুদ্ধেই ফ্রি-কিক থেকে গোল তুলে নেয় গোয়া। সেটপিস থেকে ব্র্যান্ডন ফার্নান্দেজের ভাসানো বল অনবদ্য হেডে জালে জড়িয়ে দেন অধিনায়ক এডু বেদিয়া। কিন্তু গোল হজম করেই টনক নড়ে পার্সেপোলিসের। মুহুর্মুহু আক্রমণে গোয়া রক্ষণ ছারখার করে দিতে থাকেন ইসা আলেকাসির, মেহদি তোরাবিরা। আর পার্সেপোলিসের পালটা আক্রমণে পিছু হটতে থাকে গোয়া।

চার মিনিট বাদেই দোনাচি বক্সের মধ্যে ফাউল করলে পেনাল্টি পায় গতবারের রানার্সরা। স্পটকিক থেকে গোল করে পার্সেপোলিসকে সমতায় ফেরান তোরাবি। ছ’মিনিট বাদে ফের গোল। ২৪ মিনিটে পার্সেপোলিসের কর্নার গোয়া রক্ষনে আংশিক প্রতিহত হলেও বিপন্মুক্ত হয়নি। আংশিক প্রতিহত হওয়া বল থেকে তোরাবির সেন্টারে মাথা ছুঁইয়ে গোল করেন অধিনায়ক জালাল হোসেইনি। পার্সেপোলিস আক্রমণে দিশেহারা এফসি গোয়া রক্ষণ প্রথমার্ধের শেষদিকে ফের একটি পেনাল্টি হজম করে বসে। কিন্তু তেকাঠির নীচে ফের অনবদ্য ধীরজের দস্তানায় সেযাত্রায় রক্ষা পায় তারা। আরেকটি ক্ষেত্রেও পার্সেপোলিসের অবধারিত গোলের সুযোগ ধীরজের দস্তানায় প্রতিহত হয়।

দ্বিতীয়ার্ধে গোয়া সমতা ফেরানোর চেষ্টা করলেও দ্বিতীয়বারের জন্য ইরানের চ্যাম্পিয়ন ক্লাবের রক্ষণ ভাঙতে পারেনি তারা। ফেরান্দো বেশ কিছু পরিবর্তন আনলেও সমতায় ফিরতে পারেনি গৌররা। তৃতীয় ম্যাচে এসে প্রথম হারের মুখ দেখে গ্রুপে তৃতীয়স্থানে নেমে গেল গোয়া। শেষ মুহূর্তের গোলে মঙ্গলবার আল রায়ানকে হারিয়ে (৩-২) দ্বিতীয়স্থানে উঠে এল আল ওয়াহদা।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.