প্রতীকী ছবি

ওয়াশিংটন: বিশ্ব জুড়ে চিনা মোবাইলের রমরমা। চিনের সংস্থাগুলি ছড়িয়ে পড়েছে বিশ্বের বিভিন্ন দেশে। ভারতও তার ব্যতিক্রম নয়। তবে, এবার মার্কিন গোয়েন্দারা জানালেন চিনা মোবাইল মোটেই খুব একটা নিরাপদ নয়। একইসঙ্গে আমেরিকার তিন শীর্ষ গোয়েন্দা সংস্থা FBI, CIA ও NSA এমনই বার্তা দিচ্ছে। বিশেষ করে চিনের Huawei ও ZTE- এই মোবাইল গুলির ব্যবহার করতে নিষেধ করছে গোয়েন্দা সংস্থার কর্তারা।

FBI-এর কর্ণধার ক্রিস রে জানিয়েছেন, চিনের প্রযুক্তি সংস্থাগুলির তথ্য চুরি করার ক্ষমতা রয়েছে। ফলে, এইসব ফোনের মাধ্যমে চরবৃত্তি করাও কোনও কঠিন কাজ নয় চিনের পক্ষে। এভাবেই আন্তর্জাতিক স্তরে চরবৃত্তি হতে পারে বলে মনে করেন তিনি। তবে, এই সতর্কবার্তা নতুন কিছু নয়। তবে Huawei নামে ওই সংস্থার প্রতিষ্ঠাতা একসময় চিনের সেনাবাহিনীতে ইঞ্জিনিয়ার ছিলেন। তাই সন্দেহটা কোনও ভাবেই উড়িয়ে দেওয়া যায় না।

এছাড়া, চিনের সংস্থাগুলি তাদের নিজেদের দেশের সার্ভারেই সব তথ্য রাখে। সুতরাং, আসলে সব তথ্যই ফিল্টার হয়ে যাচ্ছে তাদের কাছেই। আর সবথেকে বড় কথা চিন তাদের আইন মেনেই সব ডেটা অ্যাকসেস করতে পারে। ঠিক যেভাবে, Kaspersky-র সব ডেটা রাশিয়ার হাতে থাকে বলেই মনে করা হয়।

যদিও আমেরিকার এই দাবিতে মোটেই আমল দিচ্ছে না থাকে Huawei. তাদের বক্তব্য, ১৭০টি দেশ তাদের বিশ্বাস করে। আর তাদের জন্য কখনও সাইবার সিকিউরিটিতে কোনও প্রভাব পড়েনি।

সবথেকে বড় চিন্তার বিষয় হল, ভারতের বাজারে একটা বড় অংশ অধিকার করেছে এই চিনা মোবাইল সংস্থা। বিশ্ব বাজারে নির্মাণের ক্ষেত্রে অ্যাপলকে পিছনে ফেলে দিয়েছে Huawei. স্যামসাং-এর পরই তাদের জায়গা। তাদের ফোন বেশ জনপ্রিয় ভারতে। ফলে ভারত থেকে অন্য দেশে তথ্য যাওয়ার সম্ভাবনা রয়েই যাচ্ছে। শুধু Huawei নয়, OnePlus বা Xiaomi-র মত সংস্থার ক্ষেত্রেও একই ভয় থেকে যাচ্ছে। সুতরাং চিনা ফোন কেনার আগে সাবধান।