লাহোর: পাকিস্তানের জার্সি গায়ে শেষ টেস্ট ম্যাচটি খেলেছিলেন ২০০৯ নভেম্বরে। এরপর দীর্ঘ সময়ের বিরতি। ফাওয়াদ আলমের নামটাই হয়তো ভুলতে বসেছিলেন দেশের ক্রিকেট অনুরাগীরা। অবশেষে ঘরোয়া ক্রিকেটে ভালো পারফরম্যান্সের পুরস্কার। এক দশক পর জাতীয় টেস্ট দলে প্রত্যাবর্তন ঘটতে চলেছে পাকিস্তানের মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যান ফাওয়াদ আলমের। শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে ঘরের মাঠে আসন্ন টেস্ট সিরিজের ঘোষিত দলে চমক এই বাঁ-হাতি ব্যাটসম্যান।

দশ বছর পর ফাওয়াদের জাতীয় টেস্ট দলে সুযোগ পাওয়া প্রসঙ্গে ঘরোয়া ক্রিকেটে তাঁর ধারাবাহিক ভালো ফর্মের কথা উল্লেখ করেন কোচ মিসবা উল-হকও। মিসবার কথায়, ‘ধারাবাহিক কঠোর পরিশ্রমের মূল্য পেল ফাওয়াদ।’ একইসঙ্গে পাকিস্তান হেড কোচের কথায়, ‘ফাওয়াদের নির্বাচন তরুণ ক্রিকেটারদের ক্ষেত্রেই কেবল শিক্ষণীয় নয়, পাশাপাশি ঘরোয়া ক্রিকেটকে মূল্য দেওয়ার বিষয়ে এটা নির্বাচকদের কাছেও বার্তা।’

১৬ বছরের বর্ণময় প্রথম শ্রেণীর ক্রিকেটে ৫৬.৮৪ গড়ে ফাওয়াদের নামের পাশে রয়েছে ১২,২২২ রান। ২০০৯ জুলাইয়ে শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে অভিশপ্ত সিরিজে টেস্ট ক্রিকেটে অভিষেক হয়েছিল ফাওয়াদের। শ্রীলঙ্কার টিম বাসে জঙ্গি হামলার সেই সিরিজে অভিষেক টেস্টে সেঞ্চুরিও এসেছিল ফাওয়াদের ব্যাটে। কিন্তু তিন ম্যাচে একটি শতরান ও ৩টি অর্ধশতরান সত্ত্বেও আগামিদিনে ক্রিকেটের লম্বা ফর্ম্যাটে পসার জমাতে পারেননি এই মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যান। তবে আন্তর্জাতিক ওয়ান-ডে’তে ২০১৫ অবধি খেলা চালিয়ে গিয়েছেন ফাওয়াদ। ঢাকায় বাংলাদেশের বিরুদ্ধে শেষ আন্তর্জাতিক ওয়ান-ডে খেলেছিলেন এই বাঁ-হাতি ব্যাটসম্যান।

এরপর ঘরোয়া ক্রিকেটে মুখ বুজে পারফরম্যান্স করে গিয়েছেন ফাওয়াদ। অবশেষে প্রথম শ্রেণীর ক্রিকেটে নিজেকে প্রমাণের পর চার বছরেরও বেশি সময় বাদে জাতীয় দলের দরজা খুলল তাঁর। ঘরের মাঠে শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে টেস্ট সিরিজে ১৬ সদস্যের প্রাথমিক স্কোয়াডে জায়গা করে নিলেন এই মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যান। শেষ মুহূর্তে পেসার মহম্মদ মুসাকে সরিয়ে ১৬ জনের স্কোয়াডে জায়গা করে নিয়েছেন উসমান শিনওয়ারি। যদিও বাদ পড়েও দলের সঙ্গেই থাকছেন মুসা। কুয়েদ-ই-আজম ট্রফিতে ভালো পারফরম্যান্সের মধ্যে দিয়ে নিজের ফিটনেস প্রমাণে উত্তীর্ণ হয়েছেন শিনওয়ারি। ইমরান খান, মহম্মদ আব্বাস, নাসিম শাহ এবং শাহিন আফ্রিদির সঙ্গে পেস বিভাগে শিনওয়ারির জুটি ভালোই জমবে বলে আশা কোচের।

১০ ডিসেম্বর রাওয়ালপিন্ডিতে সিরিজের প্রথম ম্যাচে মুখোমুখি হবে পাকিস্তান-শ্রীলঙ্কা

ঘোষিত ১৬ সদস্যের স্কোয়াড: আজহার আলি (অধিনায়ক), আবিদ আলি, আসাদ শফিক, বাবর আজম, ফাওয়াদ আলম, হ্যারিস সোহেল, ইমাম উল-হক, ইমরান খান, কাশিফ ভাট্টি, মহম্মদ আব্বাস, মহম্মদ রিজওয়ান, নাসিম শাহ, শাহিন আফ্রিদি, শান মাসুদ, ইয়াসির শাহ ও উসমান শিনওয়ারি।

প্রশ্ন অনেক-এর বিশেষ পর্ব 'দশভূজা'য় মুখোমুখি ঝুলন গোস্বামী।