সাগর বাগচি, শিলিগুড়ি: ফাস্টফুডে মজেছে এই প্রজন্ম৷চিকিৎসকদের হাজারো বারণ আটকাতে পারছে না তাদের ফাস্টফুড খাওয়া থেকে৷ প্রবীণরা মুখে যাই বলুন না কেন, ফাস্টফুড দেখলে লোভ সামলাতে পারেন না, এমন লোকের সংখ্যাও নেহাত কম নয়৷তাই ফাস্টফুডের স্বাদ থেকে মানুষকে বঞ্চিত না করে বরং খাবারের পুষ্টিগুণ বাড়ানোই বুদ্ধিমানের কাজ বলে মনে করেছেন উত্তরবঙ্গ বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাণিবিদ্যা বিভাগের ফিশারিজ রিসার্চ অ্যান্ড ট্রেনিং সেন্টারের শিক্ষকরা৷
ওয়েস্ট বেঙ্গল ইউনিভার্সিটি অফ অ্যানিম্যাল অ্যান্ড ফিশারিজ সায়েন্স (ডব্লুবিইউএএফসি) এর সহযোগিতায় বৃহস্পতিবার থেকে উত্তরবঙ্গ বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাণিবিদ্যা বিভাগে শুরু হল দুদিন ব্যাপী মৎস্যজাত খাদ্যদ্রব্য তৈরির উপর একটি কর্মশালা। প্রাণিবিদ্যা বিভাগের প্রধান ডাঃ সুদীপ বরাট বলেন, যে সমস্ত ফাস্টফুড এই মুহূর্তে বাজারে বিক্রি হচ্ছে তার থেকে অনেক বেশি পুষ্টিকর হবে মাছ দিয়ে তৈরি ফাস্টফুডগুলি। তাই মাছ দিয়ে বিভিন্ন রকমের সুস্বাদু ফাস্টফুডের রেসিপি শেখানো হবে এই কর্মশালায়।
এদিন উত্তরবঙ্গ বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাইস চ্যান্সেলর সোমনাথ ঘোষ, প্রাণিবিদ্যা বিভাগের প্রধান  সুদীপ বরাট, ডব্লুবিইউএএসসি এর কো-কনভেনর এস সরকার প্রদীপ জ্বালিয়ে কর্মশালার সূচনা করেন। এই কর্মশালায় বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাণিবিদ্যা বিভাগের ছাত্রছাত্রীদের পাশাপাশি সেল্ফ হেল্প  গ্রুপের বেশ কিছু মানুষ এবং কয়েকজন গৃহবধূও অংশ নেন। কীভাবে মাছ দিয়ে বিভিন্ন ধরনের ফাস্টফুড তৈরি করে উপার্জন সম্ভব হয়, তারই প্রশিক্ষণ দেওয়া হবে দু'দিনের এই কর্মশালায়।