কৃষকের আয় দ্বিগুনের লক্ষ্যে ব্যাঙ্ক গুলিও যে সক্রিয় ভূমিকা পালন করছে তা প্রমান করতে তৎপর হয়ে ঊঠেছে রাষ্ট্রীয় ব্যাঙ্কগুলি। কৃষকের ঋণ যাতে পুনরায় বলবত হয়, তার চেষ্টা শুরু হয়েছে।

ইতিমধ্যে ব্যাঙ্ক গুলির তরফ থেকে কেন্দ্রীয় সরকারের সঙ্গে একপ্রস্থ আলোচনা সাড়া হয়ে গিয়েছে বলে সংবাদ সূত্রের খবর। শুধু তাই নয় ঋণ মেটেনি কিম্বা অনাদায়ী হওয়া সত্ত্বেও কৃষক যেন ফের ঋণ পায় সে ব্যাপারেও প্রক্রিয়া চালু করেছে ব্যাঙ্ক পরিচালন কমিটিগুলিও। তারা এ বিষয়ে ব্যাঙ্ক এর তৃনমূল স্তরের কর্মীদের কাছেও নির্দেশ পাঠাতে শুরু করছে চলতি সপ্তাহে। শুধু নির্দেশ নয় , কর্মীদের মতামতকেও অগ্রাধিকার দেওয়ে হবে বলে সংবাদ মাধ্যমে প্রকাশ।

প্রাকৃতিক দুর্যোগের কারনেও যদি কৃষকের ক্ষতি সামাল দিতে বাড়তি ঋণ প্রয়োজন হয় সে ব্যাপারেও ব্যাঙ্কগুলি সক্রিয় ভূমিকা নিতে চলেছে বলে জানা গিয়েছে। সূত্রের খবর, মুদ্রা লোনের দিকেই যাতে সাধারনের আকর্ষন বৃদ্ধি পায় সে ব্যাপারে কেন্দ্রীয় সরকার সজাগ দৃষ্টি রেখেছে। তবে এর পাশাপাশি ঋণ দেওয়ার যে তথ্যপ্রযুক্তিগত দিকটি তা আরো ঢেলে সাজার কাজটিও শুরু করা হবে ব্যাঙ্কগুলির তরফ থেকে।