কলকাতা: এবার নোটিশ দিয়ে ধর্মঘটে নামছে বাংলার কৃষকেরা। আর এই নোটিশ জমা দেওয়া হবে মহকুমা শাসক এবং বিডিও র কাছে। ৩জানুয়ারি রাজ্যজুড়ে প্রশাসনের দফতরে জমায়েত হবে কৃষকরা। তখন সেখান থেকেই ধর্মঘটের নোটিশ দেওয়া চলবে। যাতে বলা থকাবে- তাঁরা ভারতের কৃষক এবং শামিল হচ্ছেন গ্রাম ধর্মঘটে। সেক্ষেত্রে এই ধর্মঘটে শামিল হচ্ছে কৃষক, ভাগচাষী, খেতমজুর, মৎস্যজীবী, গোপালকের পাশাপাশি আদিবাসী, দলিত, পরিযায়ীরা ৷

এরফলে আশংকা করা হচ্ছে ৮জানুয়ারি ধর্মঘটের প্রভাব পড়বে গ্রামের জীবন। ৩জানুয়ারি এ রাজ্যের প্রাদেশিক কৃষকসভাসহ এরাজ্যে বামপন্থী কৃষক সংগঠনগুলি একযোগে প্রশাসনের দরজায় লটকে দেবে গ্রাম ধর্মঘটের নোটিশ। এ কথা জানিয়েছেন, সারা ভারত কৃষকসভার পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য কমিটির সম্পাদক অমল হালদার।

শিল্পক্ষেত্রে শ্রমিক কর্মচারীরা মতোই কৃষকেরাও এবার গ্রাম ধর্মঘটে একই পথ যাচ্ছে ৷ ৮জানুয়ারি কৃষকেরা কাজ করতে যাবেন না অর্থাৎ চাষ করতে ফসলের খেতে নামবেন না। পাশাপাশি শীতের সকালে জলে নামবেন না মৎস্যজীবীরাও।আবার গোয়ালারও দুধ নিয়ে শহরের পথে বের হবেননা । ৩জানুয়ারি নোটিশে এই বার্তা তুলে ধরবেন কৃষকরা।

শুধু নিজেদের কাজ বন্ধ  রাখা নয় ধর্মঘট সফল করতে পথেও নামবেন বাংলার কৃষকেরা। প্রয়োজনে রাস্তা এবং রেল অবরোধে অংশ নেবেন৷ আর সে কাজের জন্য এখন  প্রস্তুতি নিচ্ছে  গ্রামগুলি৷