তিমিরকান্তি পতি, বাঁকুড়া: সাম্প্রতিক ঘূর্ণিঝড় ‘আমপানে’ ক্ষতিগ্রস্ত পান চাষীদের প্রশাসনের তরফে আর্থিক সাহায্য করা হলেও অনেকেই তা পাননি বলে অভিযোগ উঠতে শুরু করেছে।

বাঁকুড়ার সোনামুখী পুর এলাকার ১ ও ৩ নম্বর ওয়ার্ড এলাকার পান চাষী লক্ষীকান্ত দাস, মনোহর দত্তদের স্পষ্ট অভিযোগ, যাদের পানের বরোজ নেই তারা ক্ষতিপূরণের টাকা পেয়ে গেছেন। কিন্তু তারা দীর্ঘদিন পান চাষ করে আসছেন, আমপানে বরোজ ভেঙ্গে পড়েছে। তবুও এক টাকাও ক্ষতিপূরণ পাননি বলে দাবি করেন।

প্রসঙ্গত, সম্প্রতি জেলা প্রশাসন সূত্রে জানানো হয়েছিল , আমপানে বাঁকুড়া জেলায় সর্বমোট ১৯০ হেক্টর জমির পান বরোজ ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। ক্ষতিগ্রস্ত পান চাষীরা সরকারী অনুদান হিসেবে পাঁচ হাজার টাকা ছাড়াও একশো দিনের কাজ প্রকল্প থেকে আরও পনেরো হাজার টাকা পেতে পারেন।

এবিষয়ে সোনামুখী পুরসভার বর্তমান প্রশাসক সুরজিৎ মুখোপাধ্যায়কে প্রশ্ন করা হলে তিনি বলেন, দলমত নির্বিশেষে ৭২ জন পান চাষীর আবেদন জেলায় পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে। যদিও এদের মধ্যে চার জনের জমির কাগজপত্রে সমস্যা রয়েছে। এর মধ্যে কিছু চাষীকে প্রথম পর্যায়ে আনুষ্ঠানিকভাবে ক্ষতিপূরণের টাকা দেওয়া হয়েছে। বাকিরাও পাবেন বলে তিনি জানান।

পপ্রশ্ন অনেক: চতুর্থ পর্ব

বর্ণ বৈষম্য নিয়ে যে প্রশ্ন, তার সমাধান কী শুধুই মাঝে মাঝে কিছু প্রতিবাদ