মুম্বই : নানা পাটেকারের বিরুদ্ধে যৌন হেনস্থার অভিযোগ এনে সংবাদ শিরোনামে এখন একটাই নাম, তনুশ্রী দত্ত৷ অমিতাভ বচ্চন এবং আমির খানকে অভিনেত্রী তনুশ্রী দত্তের যৌন হেনস্থার অভিযোগ নিয়ে প্রশ্ন করা হলে মুখ খুলতে নারাজ তাঁরা৷ এমনকি ২০০৮ সালের ঘটনার সময়ও তনুশ্রীর পাশে এসে দাঁড়াননি কোনও অভিনেতা৷

সম্প্রতি নিজের সাক্ষাৎকারে তনুশ্রী বলেছিলেন, “এ লিস্টেড স্টাররা, বড়ো বড়ো অভিনেতারা নানা পাটেকারের সঙ্গে ক্রমাগত কাজ করে যাচ্ছেন৷ অক্ষয় কুমার, রজনীকান্ত প্রত্যেকেই ওনার সঙ্গে কাজ করেন৷ বলিউডের শীর্ষে থেকেও যদি তোমরা অন্যায় বিরুদ্ধে গিয়ে দাঁড়াতে না পারো তাহলে কী লাভ বড়ো অভিনেতা হয়ে?”

অমিতাভ-আমিরের ডিপ্লোম্যাটিক উত্তরে যেখানে ইন্টারনেটে নিন্দার ঝড় উঠেছে, সেখানেই অভিনেতা ফারহান আখতার এসে দাঁড়ালেন তনুশ্রীর পাশে৷ সেই তালিকা রয়েছেন প্রিয়াঙ্কা চোপড়া, সোনম কাপুর এবং রিচা চাড্ডাও৷

সম্প্রতি একজন সাংবাদিক অনেকগুলি ট্যুইট করে লিখেছিলেন, “তনুশ্রী যা বলছেন পুরোটাই সত্যি৷ ২০০৮ সালে সেই সময় সেটে আমি উপস্থিত ছিলাম৷ তনুশ্রীকে যেভাবে অ্যাটাক করা হয়েছে পুরোটাই আমি দেখেছি৷ সেইদিন রাতে যখন ওনার সাক্ষাৎকার নিই, উনি কাঁদতে কাঁদতে, মুখে ভয় নিয়ে সবটা বলেছিলেন৷”

এছাড়াও সেই সাংবাদিকের বাকি কয়েকটি ট্যুইট চোখে পড়ে ফারহান আখতারের৷ তিনি সেই ট্যুইট শেয়ার করে লিখেছেন, “১০ বছর আগে তনুশ্রী নিজের কেরিয়ার নিয়ে যথেষ্ট চিন্তিত ছিলেন৷ তারপরও তিনি অভিযোগ জানিয়েছিলেন৷ সেই সময়ও তাঁর কথায় বদল ঘটেনি আজও নয়৷ ওনার সাহসকে বাহবা দেওয়া উচিত৷ কেন এতদিন পর আবার একই প্রসঙ্গ তুললেন সেসব না ভেবে৷”

প্রিয়াঙ্কা চোপড়া ফারহানের ট্যুইট শেয়ার করে লিখেছেন, “আমি সহমত৷ সকলের জানা উচিত৷ হেনস্থায় পীড়িত মহিলাদের বিশ্বাস করা উচিত৷”

এরপর একে একে সোনম কাপুর, রিচা চাড্ডাও তনুশ্রীর পাশে দাঁড়ায়৷ সোনমের কথায়, “তনুশ্রী এবং এই সাংবাদিককে আমি বিশ্বাস করি৷ কারণ এই সাংবাদিক আমার বান্ধবী৷ উনি যাই হোক, কোনও ঘটনাকে সাজিয়ে কিংবা বাড়িয়ে বলবেন না৷” টুইঙ্কল খান্না, স্বরা ভাস্কর, পরিনীতি চোপড়া, কঙ্কনা সেন শর্মা, দক্ষিণী সুপারস্টার সিদ্ধার্থ তনুশ্রীর সাপোর্টে কথা বলেছেন৷ তবে নানা পাটেকর যে এবার তনুশ্রীকে াইনি নোটিশ পাঠাতে চলেছেন, সেকতাও শোনা যাচ্ছে বলি-পাড়ায়৷