মুম্বই: মহব্বতে ছবিতে শাহরুখ খান ও ঐশ্বর্য রাইয়ের রসায়ন আজও মানুষের মনে রয়ে গিয়েছে। ছবির প্রত্যেকটি গান সেসময় তুমুল জনপ্রিয় হয়েছিল। হামকো হামিসে চুরালো গানটিতে বরফাবৃত পাহাড়ের বুকে শিফন শাড়ি ঐশ্বর্য রাই মুগ্ধ করেছিলেন দর্শকদের। ঠিক ২০ বছর আগে আদিত্য চোপড়া পরিচালিত এই ছবি মুক্তি পেয়েছিল। সেই ছবি নিয়েই বেশ কিছু স্মৃতিচারণ করেছেন পরিচালক তথা কোরিওগ্রাফার ফারহা খান।

লন্ডনে কনকনে ঠান্ডায় শুটিং হয়েছিল। ঠান্ডাতে নির্লিপ্তভাবে কাজ করে গিয়েছিলেন ঐশ্বর্য। সে সব কথাই মনে করলেন না। তিনি বলছেন, ঐশ্বর্য খুবই পেশাদার। লন্ডনের হাড় হিম শীতে একটি পাতলা লেসের শাড়ি পড়ে কাজ করছিলেন। কিন্তু মুখে একবারো কোন অসুবিধার কথা প্রকাশ করেননি। ওর আর শাহরুখের রসায়ন এই ছবিতে বিশেষ জায়গা করে নিয়েছিল। এক লড়কি থি দিবানি সি কবিতায় ওরা যেভাবে অভিনয় করেছিল তা আইকনিক।

ফারহা আরো বলছেন, আমরা সেসময় লন্ডনে শুটিং করছিলাম। কনকনে ঠাণ্ডা এবং বৃষ্টির রাতে শুটিং চলছিল। দুটি গানের শুটিংয়ের জন্য আমরা সুইজারল্যান্ড গিয়েছিলাম। তার মধ্যে একটি হলো হামকো হামিসে চুরালো। আমার মনে হয় এই গানটি ছবির অন্যতম সুন্দর গান ছিল।

শাহরুখ খুব তাড়াতাড়ি নাচের স্টেপ গুলি তুলে ফেলতে বলে জানিয়েছেন ফারহা। তিনি বলছেন, ওই ছবির আগে আরো বেশ কিছু ছবিতে আমার ততদিনে শাহরুখের সঙ্গে কাজ করা হয়ে গিয়েছে। তাই বাচ্চারা মানে উদয় চোপড়া, শামিতা শেটি, জিমি শেরগিল, কিম শর্মা, যুগল হংসরাজ এবং প্রীতি ঝাঙিয়ানি দুমাস রিহার্সাল করেছিল। কিন্তু শাহরুখ এসে মাত্র ২ মিনিটে নাচ তুলে ফেলত। কারণ ওর সাথে কখনো আসতো না।

৯ এর দশকে এই ছবিটি ব্যাপক জনপ্রিয়তা পেয়েছিল। ছবিতে অভিনয় করেছিলেন অমিতাভ বচ্চন, শাহরুখ খান, ঐশ্বর্য রাই, উদয় চোপড়া, শামিতা শেটি, জিমি শেরগিল, কিম শর্মা, যুগল হংসরাজ এবং প্রীতি ঝাঙিয়ানি।

জেলবন্দি তথাকথিত অপরাধীদের আলোর জগতে ফিরিয়ে এনে নজির স্থাপন করেছেন। মুখোমুখি নৃত্যশিল্পী অলোকানন্দা রায়।