মুম্বই : বহু বছর ধরে ভক্তরা এই অপেক্ষায় ছিলেন কবে ঐশ্বর্যার পপস্টার লুক দেখতে পাবেন৷ ‘ফ্যানি খান’ ছবিতে ঐশ্বর্য রাই বচ্চন, পপস্টার বেবি সিংয়ের ভূমিকায় অভিনয় করেছেন৷ এর আগে কখনও এই ধরণের চরিত্রে অভিনয় করেননি ঐশ্বর্যা৷ স্বাভাবিকভাবেই তাঁর এই পপস্টার অবতার নিয়ে সিনেপ্রেমীদের উৎসাহ তো ছিলই৷

সম্প্রতি মুক্তি পাওয়া ‘ফ্যানি খান’র ট্রেলারে অভিনেত্রীর সেই অবতারের ঝলকমাত্র পাওয়া গিয়েছিল৷ তাতে কী আর ভক্তদের মন ভরে! ঐশ্বর্য-ভক্তদের সন্তুষ্ট করতে প্রকাশ্যে এলো অভিনেত্রীর বিশেষ গান ‘মহব্বত’৷ ঐশ্বর্যার সৌন্দর্যে ফের মুগ্ধ হল দর্শক৷ সঙ্গে নয়া অবতারে হইচই মাতিয়ে দিলেন সিনেমহলে৷

গানটিতে স্টেজের ওপর পারফর্ম করছেন বেবি সিং৷ ব্লিঙ্গি কস্টিউম পরে হাতে মাইক নিয়ে স্টেজ কাঁপাচ্ছে বেবির পারফরমেন্স৷ ‘মহব্বত’ গানটি আসলে একটি পুরনো গানের রিমেক৷ ‘আনমোল ঘড়ি’ ছবির গান ‘জাওয়া হ্যায় মহব্বত’৷ সেই গানটিকেই পপ জনরাহর টাচ দিয়ে এই নতুন ট্র্যাক বানানো হয়েছে৷ নতুন গানটিতে লিরিকসের খানিক তফাত রয়েছে সঙ্গে সুরেরও৷ এনার্জেটিক মিউজিকের মাঝে ইংরেজি লিরিকসও ঢোকানো হয়েছে৷ যাতে গানটির মধ্যে পপ কালচারের স্বাদ থাকে৷ গানটি গেয়েছেন সুনিধি চৌহান৷ ছবির সঙ্গীত পরিচালক তনিশ্ক বাগচী৷

বেলজিয়ামের ছবি ‘এভরিবডিস ফেমাস’ রিমেক হল ‘ফ্যানি খান’৷ এই মিউজিকাল কমেডিতে অনিল কাপুর একটি উঠতি তরুনী গায়িকার বাবার চরিত্রে অভিনয় করছেন৷ ছবিতে তিনিও একজন সঙ্গীতকার তবে তিনিও একজন স্ট্রাগলার৷ সঙ্গীতের জগতে তাঁর মেয়েরও নাম হবে, এই আশা নিয়েই ফন্দি আঁটে সেই ব্যক্তি৷ শহরের নামী এক গায়িকার অপহরণ করেন তিনি৷ সেই নামী গায়িকারে ভূমিকায় অভিনয় করেছেন ঐশ্বর্যা রাই বচ্চন৷ ‘এমনই এক ফ্যানি খানের কাহিনি. . আমারও কাহিনি’৷ এই ক্যাপশন দিয়েই ‘ফ্যানি খান’র পোস্টার প্রকাশ্যে এনেছিলেন অনিল কাপুর৷

দীর্ঘ ১৮ বছর পর আবারও এক ছবিতে কাজ করতে চলেছেন ঐশ্বর্য রাই বচ্চন এবং অনিল কাপুর৷ ‘হম আপকে দিল মে রেহতে হ্যাঁয়’ পর স্ক্রিন স্পেস শেয়ার করছেন এই অভিনেতা-অভিনেত্রী৷ তবে এবারে কেউ কারও বিপরীতে নয়৷ সম্পূর্ণ অন্য ধাঁচের ছবিতে একে অপরের সঙ্গে অভিনয় করছেন, ‘ফ্যানি খান’ ছবিতে৷ ছবির পরিচালক অতুল মঞ্জরেকর৷

দীর্ঘ দু’বছর পর এই ছবির হাত ধরে ফের বলিউডে নিজের জলওয়া দেখাতে চলেছেন ঐশ্বর্যা৷ ২০১৬ সালে ‘এ দিল হ্যায় মুশকিল’ বক্স অফিসে তেমন সাফল্যের মুখ দেখতে পায়নি৷ এমনকি সমালোচকরাও ছবিটিকে তেমন ভাল রিভিউ দেননি৷ ফ্লপ করে যায় করণ জোহারের এই প্রজেক্ট৷ ‘ফ্যানি খান’র হাত ধরে সাফল্যের আশা নিয়েই এগোচ্ছেন নায়িকা৷ এই ছবিটি নিয়ে আগে বহু বিতর্ক হয়েছে৷ কখনও সিনেমার তারকার অসুস্থ হয়ে পড়া, তো কখনও অভিনেতা অভিনেত্রীদের টাইমিং ম্যাচ না করা৷

বিভিন্ন সমস্যা কাটিয়ে ছবির শ্যুটিং শুরু হলেও ঐশ্বর্যার সমস্যা তৈরি হয় একটি গানের লিরিকস নিয়ে৷ ‘মহব্বত’ গানটি মুক্তি পাওয়ার পর সকলে অনুমান করছেন সম্ভবত এটাই সেই গান৷ গানটির কয়েকটি লাইন তাঁর একেবারেই পছন্দ হয়নি৷ সেগুলিকে বদলে ফেলার কথা বলেছিলেন নির্মাতাদের৷ প্রথমদিকে বেঁকে বসলেও পরে রাজি হয়ে যান সঙ্গীত পরিচালক৷ ছবিতে অভিনেত্রীর নাচের দৃশ্য রয়েছে৷ সেগুলি শ্যুট করানো হয়েছে এক জনপ্রিয় ইন্টারন্যাশনাল কোরিওগ্রাফারের তত্ত্বাবধানে৷

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.