বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমে অভিনেতা ইরফান খানের অসুস্থতা নিয়ে ছড়িয়েছে নানান খবর ৷ সোশ্যাল মিডিয়ায় ইরফান খানের নিজস্ব পোস্ট থেকে সূত্রপাত হয় সবকিছুর ৷ দুদিন আগে ইরফান খোলা চিঠিতে লেখেন তিনি বিরল রোগে আক্রান্ত ৷

তাঁর এই ইমোশনাল চিঠিটি পড়ার পর স্বাভাবিকভাবে রিঅ্যাক্ট করতে থাকেন প্রত্যেকে ৷ নানা রকমের খবর তৈরি হতে শুরু করে বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমে ৷ এমনও শোনা যায় অভিনেতা আসলে ব্রেন ক্যান্সারে আক্রান্ত ৷

এই খবর আসার সঙ্গে সঙ্গে বিস্ফোরক মন্তব্য করে ওঠেন বলিউডের বিখ্যাত ট্রেড অ্যানালিস্ট কোমাল নাহটা ৷ ইরফান খানের নিকট বন্ধু হওয়ার কারণে অবশেষে মুখ খুললেন তিনি ৷ ট্যুইট করে সব জল্পনার খোলসা করলেন ৷

গতকাল রাতে ট্যুইট করে জানান ইরফান অসুস্থা এ কথা ঠিক ৷ কিন্তু এই ভয়ঙ্কর এবং বিদ্বেষপরায়ণ খবরগুলি সব মিথ্যে ৷ ট্যুইট পড়েই বোঝা যাচ্ছে কতটা বিরক্ত তিনি ৷

অসুস্থতা নিয়ে বিভ্রান্তি সৃষ্টি হয়েছে ঠিকই ৷ কিন্তু খুব শিগগিরি তিনি তাঁর অসুস্থতার বিস্তৃতু স্পষ্ট করবেন বলে জানিয়েছেন ইরফান খান ৷

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

কোনগুলো শিশু নির্যাতন এবং কিভাবে এর বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ানো যায়। জানাচ্ছেন শিশু অধিকার বিশেষজ্ঞ সত্য গোপাল দে।