জয়পুর: জলজ্যান্ত ব্যক্তির শেষকৃত্য!! তা আবার হয় নাকি? জয়পুরের গলতা গেটে ঘটে গেছে এমনই চাঞ্চল্যকর ঘটনা৷ মৃত ভেবে ব্যক্তির শেষকৃত্য করে পরিবার, পরে সেই ব্যক্তিই স্বশরীরে ফিরে আসেন৷

চেনায় হেরফের, তাই নাকি এই মস্ত বড় ভুল৷ জানা যাচ্ছে, শুক্রবার সকালে গলতা গেটে এক মদ্যপ ব্যক্তি একটি শপিং মলের সিঁড়ি থেকে পড়ে মারা যান। ঘটনাস্থলে পুলিশ এসে দেহটিকে ময়নাতদন্তের জন্য তুলে নিয়ে যায়। এরপর দাওশা জেলার লালসটের বাসিন্দারা থানায় এসে মৃত ব্যক্তির আত্মীয় পরিচয় দিয়ে দেহটিকে শেষকৃত্যর জন্য নিয়ে যায়। মৃত বিজয় প্রকাশের দেহ নিয়ে গিয়ে শেষকৃত্য হয়৷ সব কাজ সেরে বাড়ি ফেরেন প্রকাশের ভাইপো৷ বাড়ি ফিরেই চোখ কপালে ওঠে তাঁর৷বাড়ির দরজা খোলেন খোদ বিজয় প্রকাশ৷

পড়ুন: ছাগলের পরে এবার ধর্ষণের শিকার গর্ভবতী গরু

ঘুম থেকে উঠেই ভাইপো সুরেশকে প্রকাশ জিজ্ঞেস করেন, সে কোথায় গিয়েছিল? আতঙ্কিত সুরেশ জানান, প্রকাশেরই শেষকৃত্য সেরে সে ফিরছে৷ শুনে হতবাক বিজয় প্রকাশ জানান, কীভাবে জীবিত ব্যক্তির শেষকৃত্য করা হোল? সুরেশ জানান, মৃত ব্যক্তির সঙ্গে প্রকাশের চেহারায় মিল থাকায় এই বিপত্তি৷ এদিকে গলতা গেটের তদন্তকারী অফিসার হনুমান সহায় জানান , ‘লালসটের বাসিন্দারা এসে তাদের পরিজন বলে দাবি করলে আমরা তাদের হাতে দেহ তুলে দিই। মৃত ব্যক্তি ও প্রকাশের চেহারায় মিল থাকায় তার পরিজনরা বুঝতে না পেরে সেটি প্রকাশের দেহ ভেবে শেষকৃত্যের জন্য নিয়ে যান।’

তবে পরিবারের লোকেদের ভুল হওয়ার আরও কারণ ছিল। তাদের দাবি প্রকাশ নিয়মিত অত্যন্ত মদ্যপান করেন । বেশিরভাগ সময় ওই শপিং মলের কাছেই তাঁকে পড়ে থাকতে দেখা যেত ।তাঁরা ভাবতেন কোনদিন হয়ত অত্যন্ত বেশী মদ্যপানের ফলেই তিনি মারা যাবেন। তাই পরিবারের লোকের সন্দেহ হয়।
অবশ্য, প্রকাশ বেঁচে আছেন জেনে তার পরিবারে খুশির জোয়ার এসেছে।