প্রতীকী

হাওড়া: পর পর দুটি কন্যা সন্তান৷ তৃতীয় বার স্ত্রী সন্তানসম্ভবা হলে হাওড়া লিলুয়ার গুপ্তা পরিবার আশা করেছিল এবার বোধ হয় ছেলে হবে৷ কিন্তু তৃতীয় বাচ্চাটি মেয়ে হয়৷ এরপরই ক্ষোভে ফেটে পড়ে পরিবার৷ সদ্য কন্যা শিশুটি যেন তাদের বোঝা হয়ে দাড়াল৷ পরিবার ভেবে উঠতে পারছিল না শিশুটিকে নিয়ে তারা কী করবে৷ তাই শিশুটি দুই মাস বয়স হতেই পৃথিবী থেকে সরিয়ে দিল তাকে৷ এই চাঞ্চল্যকর ঘটনাটি প্রকাশ্যে আসতেই ক্ষোভে ফেটে পড়েন হাওড়া লিলুয়ার ঘুঘুপাড়া বালকসংঘ মাঠ এলাকার বাসিন্দারা৷ ঘটনার তদন্তে নেমেছে লিলুয়া থানার পুলিশ৷

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, ওই এলাকার বাসিন্দা সঞ্জয় গুপ্তা৷ পেশায় ঠিকাদার৷ তার স্ত্রী সঙ্গীতা গুপ্তা৷ তাদের দুটি কন্যা সন্তান আছে৷ তৃতীয়বারও তাদের মেয়ে হয়৷ তাই গুপ্তা পরিবার এতে খুশি হয়নি৷ দুই মাস সব ঠিক থাকলেও শনিবার রাত থেকে চিত্রটা বদলে গেল৷ সঞ্জয় ও সঙ্গীতা শিশুটিকে মেরে শনিবার রাতের অন্ধকারে মাটি চাপা দিয়ে আসে৷

তাদের এই কুকাজে পুরো সায় ছিল শিশুটির ঠাকুমা ও ঠাকুরদারও৷ রবিবার সকালে ঘটনাটি প্রকাশ্যে আসতেই স্থানীয়রা ক্ষোভে ফেটে পড়েন৷ তারাই খবর দেয় লিলুয়া থানায়৷ ঘটনাস্থলে পুলিশ এসে গুপ্তা পরিবারকে আটক করেছে৷ তাদের জিজ্ঞাসাবাদ শুরু করেছে যে শিশুটিকে মেরে ওই দম্পতি কোথায় মাটি চাপা দিয়ে এসেছে৷

সঞ্জয় গুপ্তার ভাগ্নি জানায়, তার মামা ওই শিশুটিকে মেরে ফেলেনি৷ এই কাজ তার মামী করেছে৷ এর থেকে বেশি কিছু সে আর জানে না৷