ঢাকা: ঈদ উৎসবের মাসে ভেজাল দিয়ে খাদ্য সামগ্রী বিক্রির পাশাপাশি বেড়েছে জাল নোটের বাজার৷ একাধিক স্থানে অভিযান চালাচ্ছে পুলিশ ও গোয়েন্দা বিভাগ৷ এই অভিযানে নেতৃত্ব দেওয়া ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি) ৷ তদন্তে উঠে এসেছে, ঢাকার বিভিন্ন আস্তানায় ছোট ছোট খুপরির মতো স্থান৷ সেখানেই নকল টাকা ছাপানোর কাজ চলছে৷ ছাপানো হচ্ছে লাখ লাখ টাকার জাল নোট। এই চক্রে জড়িত কয়েকজনকে গ্রেফতার করা হয়৷

বাংলাদেশকে ভিত্তি করে সন্ত্রাসবাদ ছড়িয়ে দেওয়ার বিভিন্ন পরিকল্পনা করেছে জঙ্গি সংগঠনগুলি৷ বিভিন্ন সময়ে গোয়েন্দা রিপোর্টে উঠে এসেছে, ঢাকা থেকে পাক গুপ্তচর সংস্থা আইএসআই এই কাজে জড়িত৷ তাদেরই মদতে চলে জাল টাকা তৈরি ও পাচারের কাজ৷

পুরান ঢাকার চকবাজার ও কামরাঙ্গীরচর এলাকায় অভিযান চালিয়ে জাল নোট তৈরি ও সরবরাহে যুক্ত একটি চক্রকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তাদের কাছ থেকে ১০০০ ও ৫০০ টাকা মূল্যের ৪৬ লাখ টাকার জাল নোট এবং তা তৈরির সরঞ্জাম বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে। ধৃতদের নাম – জীবন ওরফে সবুজ, জামাল উদ্দিন ও বাবুল ওরফে বাবু। তাদের সবার বিরুদ্ধে আগেও জাল নোট তৈরি ও সরবরাহের মামলা রয়েছে।

জাল নোট তৈরি করতে গিয়ে জীবন এর আগেও গ্রেফতার হয়েছিল। জেরায় তারা জানিয়েছে, ঈদে নগদ ও নতুন টাকার লেনদেন বেড়ে যায়। ওই সুযোগে জাল নোটের ব্যবহারও বেশি হয়। এজন্য জাল নোট বানিয়ে বাজারে ছাড়ার চেষ্টা করছিল।