নয়াদিল্লি: করফাঁকি এবং কালো টাকা রুখতে এখন কেন্দ্রীয় সরকারের নজর ভুয়ো ‘শেল’ সংস্থা দিকে৷ কারণ এই সব ভুয়ো সংস্থার মাধ্যমেই অনেকে কালো টাকা সাদা করে থাকে ৷ দেখা যায়,ওই সব সংস্থায় আর্থিক লেনদেনের তুলনায় ব্যবসার পরিমাণ খুবই কম৷ ফলে ওই সব সংস্থাগুলিকে বাতিল করা হচ্ছে ৷

কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রক এক বিবৃতিতে জানিয়েছে , কোম্পানি আইনের ২৪৮ (৫ ) ধারার অধীন ২,০৯ ,০৩২ সংস্থার নাম রেজিস্ট্রার অফ কোম্পানিজের নথি থেকে বাদ দেওয়া হয়েছে৷

এই সব সংস্থাগুলির নাম কেন্দ্রীয় কর্পোরেট বিষয়ক মন্ত্রকের ওয়েবসাইটে প্রকাশ করা হয়েছে৷ দেখা গিয়েছে,এই সংস্থাগুলি হয় রেজিস্ট্রার অফ কোম্পানিজে নথিভূক্ত হওয়ার এক বছর পরেও কোনও ব্যবসায়ীক কাজকর্ম চালু করেনি অথবা দীর্ঘদিন সংস্থার কোনও আর্থিক হিসাব ও অন্য তথ্য দাখিল করেনি৷ শুধু নাম কেটে দেওয়াই নয় , ওই সংস্থাগুলির ডিরেক্টর এবং অন্য আধিকারিকরা সংস্থার ব্যাংক অ্যাকাউন্টগুলিতে আর কোনও লেনদেন করতে পারবে না যতদিন কোম্পানিজ ল ট্রাইব্যুনালের এরা এদের বৈধতা প্রমাণ করে৷

কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রকের আর্থিক পরিষেবা বিষয়ক দফতর ইন্ডিয়ান ব্যাকস অ্যাসোসিয়েশনের মাধ্যমে দেশের সমস্ত ব্যাংকগুলির কাছে নির্দেশ পাঠিয়েছে৷ সেই নির্দেশে বলা হয়েছে, ওই ২,০৯ ,০৩২ সংস্থার ব্যাংক অ্যাকাউন্টে সমস্ত লেনদেন বন্ধ করে দেয়৷ তাছাড়া কোনও সংস্থা যদি তার আর্থিক লেনদেনের হিসাব অথবা বন্ধকী সম্পত্তির বিশদ বার্ষিক বিবরণ সংশ্লিষ্ট রেজিস্ট্রার অফ কোম্পানিজ -কে না জানায় তবে সেই সংস্থাগুলিকে যেন সন্দেহের তালিকায় রাখা হয়৷

পপ্রশ্ন অনেক: চতুর্থ পর্ব

বর্ণ বৈষম্য নিয়ে যে প্রশ্ন, তার সমাধান কী শুধুই মাঝে মাঝে কিছু প্রতিবাদ