নয়াদিল্লি : বেশিরভাগ ব্যাংকই তাদের গ্রাহকদের কাছে আবেদন রাখে অ্যাকাউন্টে নূন্যতম ব্যালেন্স রাখার জন্য। তবে অনেক ক্ষেত্রেই দেখা যায় অ্যাকাউন্টে মিনিমাম ব্যালেন্স বা পর্যাপ্ত টাকা নেই। সেক্ষেত্রে বড়সড় জরিমানার মুখে পড়তে হতে পারে গ্রাহকদের। অ্যাকাউন্ট গ্রাহকদের জন্য নন মেনটেনেন্স অফ মিনিমাম অ্যাভারেজ ব্যালান্স জরিমানা জারি করেছে বেশ কিছু ব্যাংক।

জুন মাস পর্যন্ত এই জরিমানা লাগু করা হয়নি লকডাউনের জন্য। কিন্তু মেয়াদ ফুরিয়েছে এই সুবিধার। ব্যাংক অফ মহারাষ্ট্র, কোটাক মাহিন্দ্রা, অ্যাক্সিস ব্যাংক জরিমানার মেয়াদ বাড়াল অগাষ্ট মাস থেকেই। অ্যাক্সিস ব্যাংক ও কোটাক মাহিন্দ্রা ব্যাংক জানিয়েছে যে গ্রাহক যে ধরণের অ্যাকাউন্ট ব্যবহার করেন, তার ওপর নির্ভর করে জরিমানার পরিমাণ ধার্য করা হবে।

ব্যাংক অফ মহারাষ্ট্র জানিয়েছে তাঁদের গ্রাহকদের অ্যাকাউন্টে ১৫০০ থেকে ২০০০ টাকা থাকতেই হবে, নয়তো জরিমানা করা হবে। যদি কোনও গ্রাহক এই নূন্যতম ব্যালেন্স অ্যাকাউন্টে রাখতে না পারেন, তবে প্রতি মাসে ৭৫ টাকা করে কাটা হবে। তবে এই জরিমানা এড়ানো যায় খুব সহজেই।

প্রথম শর্ত, যদি এই ব্যাংকগুলি স্যালারি অ্যাকাউন্ট থাকে, তবে সেই অ্যাকাউন্টগুলিতে জিরো ব্যালান্স রাখা যায়। এটি জিরো ব্যালান্স সেভিংস অ্যাকাউন্ট। সেক্ষেত্রে কোনও নূন্যতম ব্যালান্স রাখতে হয় না।

দ্বিতীয়ত, অনেকেই জানেন না, ব্যক্তিগত প্রয়োজনে এই ব্যাংকগুলিতেও জিরো ব্যালান্স অ্যাকাউন্ট খোলা যায়। এগুলিকে বলা হয় বেসিক সেভিংস ব্যাংক ডিপোজিট। অপেক্ষাকৃত দরিদ্রদের জন্য এই সুবিধা রয়েছে। এই ধরণের অ্যাকাউন্ট খুলতে গেলে গ্রাহককে কেওয়াইসি ফর্ম জমা দিতে হবে। এক্ষেত্রেও সাধারণ সুদের হার দেওয়া হয়।

তবে কিছু ব্যাংক এই ধরণের অ্যাকাউন্ট খোলার কিছু শর্ত রেখেছে। এসবিআইতে এই ধরণের অ্যাকাউন্ট খুলতে গেলে সেই ব্যাংকে অন্য কোনও অ্যাকাউন্ট থাকা চলবে না। যদি থাকে, তবে তা বন্ধ করে জিরো ব্যালান্স অ্যাকাউন্ট খুলতে হবে।

পপ্রশ্ন অনেক: নবম পর্ব

Tree-bute: আমফানের তাণ্ডবের পর কলকাতা শহরে শতাধিক গাছ বাঁচাল যারা