নয়াদিল্লি: গতমাসে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী আয়কর ক্ষেত্রে ফেসলেস ব্যবস্থার সূচনা করেছিলেন। সেই মতো শুক্রবার থেকে শুরু হল পুরোদমে ফেসলেস আয়কর অ্যাসেসমেন্ট। গত ১৩ অগস্ট প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ‘সৎ করদাতাদের সম্মান দিতে স্বচ্ছ কর ব্যবস্থা’ চালু করেন।

এর মাধ্যমে কর ব্যবস্থার সংস্কার জোরদার হবে বলে তিনি জানিয়েছিলেন। কর প্রদানের ক্ষেত্রে এই প্লাটফর্মটি আরও সহজ করা হবে বলে সেদিন দাবি করেন প্রধানমন্ত্রী। তিনি বুঝিয়ে দিয়েছেন এক্ষেত্রে কর ব্যবস্থায় তার নজর তিনটি শব্দের মধ্যে Seamless painless, faceless।

সৎ করদাতাদের সম্মান দেওয়ার ক্ষেত্রে এটি একটি নতুন প্ল্যাটফর্ম বলে উল্লেখ করে মোদী বলেছিলেন, সব করদাতাদের একটা গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা থাকে জাতীয় উন্নয়নে। আর তার জন্য এক্ষেত্রে তিনি ফেসলেস অ্যাসেসমেন্ট ও ফেসলেস অ্যাপিলের পাশাপাশি করদাতাদের জন্য সনদের ব্যবস্থা হচ্ছে এই নয়া প্লাটফর্মে।

তিনি উল্লেখ করেন, এর মাধ্যমে বড় সংস্কার করা হচ্ছে কর ব্যবস্থায়। ওই দিন থেকেই ফেসলেস অ্যাসেসমেন্ট এবং করদাতাদের সনদ চালু হলেও , ফেসলেস অ্যাপিল চালু করা হবে ২৫ সেপ্টেম্বর থেকে বলে তিনি জানান।

সেইমতো শুক্রবার তা চালু হলো।

২০১৯ সালের অক্টোবর মাসে পাইলট বেসিসে করের ক্ষেত্রে এই ফেসলেস অ্যাসেসমেন্টের সূচনা করা হয়েছিল। এজন্য ৫৮,০০০ টি কেস নেওয়া হয়।

যার মধ্যে ১১০০০টি কেসে অর্ডার জারি হয়েছে এবং ৪০০০-৫০০০টি কেসের অর্ডার খুব শীঘ্রই আসছে বলেন জানা গিয়েছে।

এই ফেসলেস ব্যবস্থায় আয়করের হিসেব-নিকেশ বা অ্যাসেসমেন্ট করার জন্য করদাতার আয়কর অফিসারের মুখোমুখি হবার দরকার হবে না , যেতে হবে না আয়কর অফিস। কার অ্যাসেসমেন্ট কোথায় হবে সেটা কম্পিউটার ঠিক করবে। আয়কর নোটিশ কেন্দ্রীয়ভাবে জারি করা হবে।

প্রশ্ন অনেক-এর বিশেষ পর্ব 'দশভূজা'য় মুখোমুখি ঝুলন গোস্বামী।