নিউ ইয়র্ক: গ্রাহকদের কথা ভেবে এবারে ফেসবুক নিয়ে এল এক নয়া সুবিধা। এর ফলে উপকৃত হবে সাধারণ ব্যবহারকারীরা। এই মুহূর্তে সাইবার বিশেষজ্ঞরা বারবার গ্রাহকদের সতর্ক করেছিলেন একাধিক বিষয় নিয়ে। আর সেই সব বিসয় মাথাতে রেখে গ্রাহকদের জন্য এই সুবিধা নিয়ে আসা হয়েছে গ্রাহকদের তরফে। নিয়ে আসা হয়েছে অ্যাপ লক সহ বেশ কয়েকটি ফিচার। যা সুবিধা হবে গ্রাহকদের।

এক আধিকারিকের তরফে জানা গিয়েছে ফেসবুক মেসেঞ্জারে গোপনীয়তা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ একটি বিষয়। আর এই অ্যাপ লক ফিচারের মাধ্যমে গ্রাহকেরা নিজেদের গুরুত্বপূর্ণ এমন গোপন মেসেজ সুরক্ষিত রাখতে পারবেন।

সম্প্রতি ফেসবুক গ্রাহকদের অন্য নয়া ভিডিও চ্যাট প্ল্যাটফর্ম মেসেঞ্জার রুম নিয়ে আসা হয়েছে। এই সুবিধার মাধ্যমে সেই ফিচারটিও সুরক্ষিত রাখা যাবে বলে জানানো হয়েছে। এই নয়া অ্যাপ লক ব্যবহার করতে চাইলে গ্রাহকদের প্রাইভেসি সেকশনে যেতে হবে। সেখানে গিয়ে সেখান থেকে এই সুবিধা নিতে পারবেন গ্রাহকেরা এর ফলে ফিঙ্গার প্রিন্ট বা ফেস লক সহ একধিক সুবিধা পেতে পারবেন। অন্য কেউ কারো মেসেজ এই সুবিধার ফলে দেখতে পারবে না। এমনকি ফোন হাতে নিলেও দেখা জবে না।

এও জানানো হয়েছে এই ফেস আইডি বা ফিঙ্গার প্রিন্ট ফেসবুকে স্টোর হয়ে থাকবে না। এই মুহূর্তে এই সুবিধা কেবল পাওয়া যাচ্ছে আই প্যাড এবং আই ফোনে। তবে দ্রুত এই সুবিধা আসবে অ্যান্ড্রয়েড ফোনে। পাশাপাশি মেসেজ কনট্রোল সহ আরও বেশ কয়েকটি বিষয় নিয়ে কাজ করছেন ফসবুক।

এর ফলে কোন ব্যক্তি নির্দিষ্ট করে নিতে পারবেন তিনি কার থেকে মেসেজ পেতে চান অথবা চান না। অর্থাৎ নিয়ন্ত্রন এবং নিরাপত্তা বিষয়টির উপরে যথেষ্ট গুরুত্ব দিতে চাইছে ফেসবুক। যে কারণে আরও নতুন নতুন পন্থা নিয়ে ভাবনা চিন্তা করছে ফেসবুক। এমনটা জানা গিয়েছে। ইতিমধ্যে বিশ্বজুড়ে প্রায় ১.৩ বিলিয়ন মানুষ ফেসবুক মেসেঞ্জার ব্যবহার করে থাকেন। অনুমান কড়া হচ্ছে ২০২১ সালের পরে এই সংখ্যা তা বেড়ে দাঁড়াবে ২.৪ বিলিয়নে।

প্রশ্ন অনেক: দশম পর্ব

রবীন্দ্রনাথ শুধু বিশ্বকবিই শুধু নন, ছিলেন সমাজ সংস্কারকও