স্টাফ রিপোর্টার, পূর্ব বর্ধমান: নিম্নচাপের বৃষ্টিতে অশান্তির মেঘ ডেকে আনল পূর্ব বর্ধমানে৷ টানা বৃষ্টিতে ধান ভিজে মার খাচ্ছে উৎপাদন৷ প্রায় সব জমি থেকে ধান কাটার কাজ শুরু হয়েছে৷ তার মধ্যে এই অবেলার বৃষ্টি চিন্তায় ফেলেছে চাষিদের৷ জলে ভেজা ধান থেকে কল বেরিয়ে গেলে ভালো চাল হবে না৷ তবে এ ছবি শুধু ভাতার ব্লকের নয়, বর্ধমান উত্তর ও দক্ষিণ মহকুমার সর্বত্রই৷

ক’দিন আগে বৃষ্টির জন্য হা-হুতাশ করছিলেন শস্যগোলা পূর্ব বর্ধমানের কৃষি অঞ্চল কাটোয়া-কালনা দুই মহকুমার কৃষকরা। পুজোর মধ্যে যা বৃষ্টি হয়েছে তা আশানুরূপ হয়নি৷ বৃষ্টি না হওয়ায় আমনে বাড়ছিল মাকড়ের উপদ্রব৷ আর গত দু’দিনের অঝোর ধারা বৃষ্টির অভাব পুষিয়ে ধান-সবজির খেত ভাসিয়ে ক্ষতির সম্ভাবনা তৈরি করেছে৷

বহু জমিতে পাকা ধান দমকা হাওয়ার ধাক্কায় মাটিতে লুটিয়ে পড়েছে৷ আবার যে সমস্ত জমিতে ধানে ফুল ধরতে শুরু করেছে, সেই সব জমির ধান দমকা বাতাসে ঝরে গিয়েছে। পূর্ব বর্ধমানের কালনা, মেমারি, পূর্বস্থলী, মন্তেশ্বর এলাকার বিস্তীর্ণ অঞ্চলে আলু ও পেঁয়াজ চাষ হয় বলে জলদি জাতের ধান চাষ করেন এইসব অঞ্চলের কৃষকরা৷ জেলার পেঁয়াজ চাষের ৯০ শতাংশই হয় কালনা মহকুমা এলাকায়৷ এখানকার সুখসাগর প্রজাতির পেঁয়াজের খ্যাতি রাজ্যজোড়া৷ সেই পেঁয়াজের বীজতলা তৈরির কাজ শুরু হয়েছে। বৃষ্টির জেরে ছত্রাকজনিত রোগের প্রকোপ শুরু হয়েছে৷