সুভাষ বৈদ্য,কলকাতা: পুজোয় ভিড় ও যানবাহন সামলাতে কলকাতার রাস্তায় থাকবে ১৮ হাজার পুলিশ৷ থাকছে কুইক রেসপন্স টিম, র‌্যাপিড পুলিশ পেট্রল, হেভি ফ্লাইং স্কোয়াড ইত্যাদি৷ ওয়াচ টাওয়ারে চলবে বিশেষ নজরদারি৷ এছাড়াও কলকাতা পুলিশের নজরদারি চলবে মেট্রো স্টেশনগুলো ও গঙ্গায়৷ তাছাড়া পুজোর সময় বাচ্চারা ভিড়ে কোনওভাবে হারিয়ে গেলে যাতে সহজে খুঁজে পাওয়া যায়, সেই উদ্দেশ্যে তৈরি ‘ চাইল্ড আইডেন্টিটি ব্যাজ’-ও প্রকাশ করেছে কলকাতা পুলিশ৷

লালবাজার সূত্রে খবর, আজ বুধবার চতুর্থী থেকেই রাস্তায় নেমে পড়বে কলকাতা পুলিশের বিশাল বাহিনী৷ এদিন অতিরিক্ত ৭ হাজার পুলিশ রাস্তায় নামানো হবে৷ পঞ্চমীতে সেই সংখ্যা বেড়ে হবে ১৮ হাজার৷ নবমী পর্যন্ত ২৪ ঘণ্টায় তিন শিফটে নজরদারি করবেন তারা৷ এদের মধ্যে রয়েছে মহিলা পুলিশ বাহিনীও৷ এবং প্রায় ৪ হাজার ট্রাফিক পুলিশ৷ শহরে ইভটিজ়িং রুখতে সাদা পোষাকে নজরদারি চালাবে কলকাতা পুলিশের বিশেষ মহিলা বাহিনী ‘দ্য উইনার্স।’

পুজোর কটা দিন শহরের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ জায়গায় নিরাপত্তা আটোসাটো করা হয়েছে ৷ তার জন্য কলকাতা পুলিশ যে সব ব্যবস্থা নিয়েছে তা হল-

১)শহরে বিভিন্ন স্থানে পুলিশ পিকেট – ২০০টির বেশি৷
২)ওয়াচ টাওয়ার থাকছে – ৪০টির বেশি৷
৩)হেভি রেডিয়ো ফ্লাইং স্কোয়াড (এইচআরএফএস)- ২০টির বেশি৷
৪)পুলিশের মোবাইল ভ্যান – ২৫টি৷
৫)সিসিটিভি ক্যামেরা – ৭৫টি৷ যার মাধ্যমে লালবাজার কন্ট্রোল সরাসরি নজরদারি করবে৷
৬)ট্রমাকেয়ার অ্যাম্বুলেন্স – ২৭টি৷
৭)এছাড়া থাকছে মিসিং পার্সন স্কোয়াড৷

পুজো মন্ডপগুলোর পাশাপাশি কলকাতা পুলিশ শহরের শপিং মল ও মন্দিরগুলিতেও বিশেষ নজরদারি চালাবে৷ অন্যদিকে গত বছরের মত এবারও একটি নির্দেশিকা জারি করেছে কলকাতা পুলিশ৷ পুজোর সময় শহরের পার্কিং স্পেসে যাঁরাই গাড়ি রাখবেন, তাদের গাড়ির সামনে ও পিছনে গাড়ির মালিক বা চালকের ফোন নম্বর লিখে রাখতে হবে৷

ইতিমধ্যেই কলকাতা ট্র্যাফিক পুলিশের পুজো গাইড ম্যাপ প্রকাশ করেছেন পুলিশ কমিশনার অনুজ শর্মা। সঙ্গে প্রকাশিত হয়েছে ট্র্যাফিক শাখার ২০১৮ সালের রিভিউ-বুলেটিন।