স্টাফ রিপোর্টার, হলদিয়া: বেশ কিছুদিন ধরে সবজি বাজারে দামে সেঞ্চুরি করছে পেঁয়াজ। আর তাই মধ্যবিত্তের মাথায় হাত পড়েছে। বর্ষার পর থেকেই লাগামছাড়া ভাবে বেড়ে গিয়েছে পেঁয়াজের দাম। সরকারও যখন দেশের বিভিন্ন বাজারগুলিতে পর্যাপ্ত পেঁয়াজ সরবরাহ এবং দাম নিয়ন্ত্রণে উঠে পড়ে লেগেছে তখন এক পেঁয়াজ ব্যবসায়ীর দোকানেই চুরি গেল পেঁয়াজ। দোকানের তালা ভেঙে প্রায় পঞ্চাশ হাজার টাকার পেঁয়াজ নিয়ে পালাল চোর বাবাজি। যদিও এই পেঁয়াজ চুরির ঘটনায় এখনও পর্যন্ত সন্দেহভাজনের নাগাল পাওয়া যায়নি।

চাঞ্চল্যকর এই চুরির ঘটনাটি ঘটেছে পূর্ব মেদিনীপুর জেলার হলদিয়ার সুতাহাটা থানার বাড়বাসুদেবপুরের সাহুবাজার এলাকায়। এই বাজারের ব্যবসায়ী অক্ষয় দাসের দোকান রয়েছে। সেখান থেকেই সোমবার মাঝরাতে প্রায় পঞ্চাশ হাজার টাকার পেঁয়াজ চুরি যায় বলে অভিযোগ করেছেন ওই ব্যবসায়ী। এদিকে রাত বিরেতে সোনাদানা চুরির ঘটনা অহরহ ঘটলেও পেঁয়াজ চুরির মত ঘটনা এই প্রথম। আর যা দেখে তাজ্জব বনে গিয়েছেন ওই ব্যবসায়ী থেকে শুরু করে স্থানীয় মানুষজন।

ওই ব্যবসায়ী অক্ষয় দাস জানিয়েছেন, অন্য দিনের মতোই সোমবার রাত ১০টা নাগাদ তিনি দোকান বন্ধ করে বাড়ি ফিরে যান। কিন্তু মঙ্গলবার সকালে অন্য ব্যবসায়ীদের কাছ থেকে ফোন পেয়ে তিনি জানতে পারেন যে, তাঁর দোকানের দরজা খোলা রয়েছে।

বাজারের অন্য ব্যবসায়ীদের থেকে এই খবর শোনা মাত্রই সঙ্গে সঙ্গে নিজের দোকানে ছুটে আসেন অক্ষয় দাস। তিনি এসে দেখেন, দোকানের তালা ভেঙে চুরি হয়ে গিয়েছে পেঁয়াজের বস্তা। শুধু পেঁয়াজ নয় সেই সঙ্গে আদা রসুনও বাদ রাখেনি চোরেরা। পেঁয়াজের সঙ্গে আদা-রসুনও চুরি করে পালিয়েছে দুষ্কৃতীরা। ওই ব্যবসায়ী জানিয়েছেন, এই দুর্মূল্যের বাজারে পেঁয়াজ রসুন চুরি যাওয়ায় তাঁর প্রায় পঞ্চাশ হাজার টাকার মতো ক্ষতি হয়ে গিয়েছে।