ফাইল ছবি

কলকাতা: কলকাতা থেকে জেলা, বিজেপির যুব মোর্চার সংকল্প যাত্রা ঘিরে উত্তেজনা৷ পুলিশি অনুমতি না সত্ত্বেও বাইক মিছিল করায় বিভিন্ন জায়গায় আটকে দেওয়া হয় গেরুয়া শিবিরের সংকল্প যাত্রা৷ বিরোধী রাজনৈতিক কর্মসূচিকে প্রশাসনের সাহায্যে বন্ধ করছে শাসক দল৷ অভিযোগ পদ্ম শিবিরের৷

পুলওয়ামা ঘটনার পর গোটা দেশজুড়ে দেশপ্রেমের জিগির৷ আর এই দেশপ্রেমকে পুঁজি করেই ভোটের আগে নানা রাজনৈতিক কর্মসূচি নিচ্ছে বিজেপি৷ বিভিন্ন পূর্ব ঘোষিত কর্মসূচিও বর্তমানে দেশপ্রেমের মোড়কেই উপস্থাপিত করতে তৎপর গেরুয়া শিবির৷ রবিবার বাইক ব়্যালি হবে এটা ছিল পূর্ব নির্ধারিত কর্মসূচি৷ কিন্তু মাঝে ঘটে যায় পুলওয়ামার মত ঘটনা৷ ফলে দেশের বীর জওয়ানদের আত্মত্যাগ ও সাফল্যের কথা দেশবাসীর কাছে পৌঁছে দিতে তা বদলে যায় ‘সংকল্প যাত্রা’য়৷

আর এই যাত্রা ঘিরেই রবিবার সকাল থেকে কলকাতা থেকে বিভিন্ন জেলায় উত্তেজনা৷ পুলিশের দাবি, সংকল্প যাত্রার জন্য অনুমতি দেওয়া হয়নি৷ উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষা চলছে৷ তাই তার মাঝে এই ধরণের যাত্রার কোনও অনুমতি দেওয়া হয়নি৷ যদিও রবিবার পরীক্ষা না হওয়ায় কোচবিহার থেকে কাকদ্বীপ, সর্বত্র বাইক মিছিল শুরু করে বিজেপি কর্মীরা৷

মিছিলের শুরুতেই আটকে দেওয়া হয় দুর্গাপুরের পাঁচমাথা মোড়ে৷ যাত্রা আটকানো নিয়ে বিজেপি কর্মীদের সঙ্গে পুলিশের কথা কাটাকাটি ও ধস্তাধস্তি হয়৷ নামানো হয় ব়্যাফ৷ একই ছবি ঝাড়গ্রামেও৷ কলকাতায় জোড়াবাগান এলাকায় বাইক মিছিল শুরু হলেই তা আটকে দেয় পুলিশ৷ মিছিলে নেতৃত্বদানকারী গেরুয়া নেতাদের থানায় দেখা করার কথা জানায় পুলিশ৷ সল্টলেকের ইই ব্লকেও আটকানো হয় বাইক ব়্যালি৷

পশ্চিম মেদিনীপুরের গোয়ালতোরও এদিন বিজেপির বাইক ব়্যালি ঘিরে উত্তপ্ত হয়ে ওঠে৷ মিছিল আটকালে পুলিশকে লক্ষ্য করে ইঁট ছোঁড়া হয় বলে অভিযোগ৷ ইঁটের ঘায়ে আহত পাঁচ পুলিশ কর্মী৷ পালটা লাঠি চার্য করে পুলিশও৷ হাওড়া ময়দান ও ব্যটরাতেও বিজেপির মিছিল ঘিরে এদিন উত্তেজনা ছড়ায়৷ একই ছবি দেখা যায় উত্তর ২৪ পরগনার অশোক নগরে৷