হাওড়া: উত্তর হাওড়া বিধানসভা কেন্দ্রের প্রাক্তণ বিধায়ক ও হাওড়া উন্নয়ন সংস্থা( এইচআইটি )-র চেয়ারম্যান তথা প্রাক্তন বিধায়ক অশোক ঘোষের জীবনাবসান হয়েছে। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৭৬ বছর।

মোট তিনবারের বিধায়ক ছিলেন অশোক ঘোষ। হাওড়া উত্তর বিধানসভা কেন্দ্রে ১৯৮২ থেকে পরপর টানা দুবার বিধায়ক নির্বাচিত হয়েছিলেন কংগ্রেসের টিকিটে। এরপর ২০১১ সালে তিনি তৃণমূল কংগ্রেসের টিকিটে নির্বাচিত হন। ২০১৬ তে শেষবার দল তাঁকে প্রার্থী করেনি। তাঁর কেন্দ্রে তৃণমূল প্রার্থী লক্ষ্মী রতন শুক্লা জয়ী হন। পরে নেত্রীর ইচ্ছাতেই অশোকবাবুকে এইচআইটি-র চেয়ারম্যান মনোনীত করা হয়।

পারিবার সূত্রে জানা গিয়েছে, ১৯৪২ সালের ২১ জানুয়ারি হুগলির খানাকুলে জন্ম হয় তাঁর। তবে, রাজনীতিতে হাতেখড়ি ১৯৬০ সালে। সে সময় তিনি মধ্য হাওড়ার নরসিংহ দত্ত কলেজে ছাত্র আন্দোলনের মধ্য দিয়ে রাজনীতিতে প্রবেশ করেন। এরপর থেকে রাজনৈতিক কর্মকান্ডে তিনি যুক্ত হয়ে যান। শুক্রবার সকালে হাওড়ার সালকিয়ায় সীতানাথ বোস লেনের বাড়িতেই তিনি শেষ নিশ্বাস ত্যাগ করেন। বার্দ্ধক্যজনিত সমস্যা ছাড়াও তিনি শ্বাসকষ্টজনিত সমস্যায় ভুগছিলেন। এই কারণেই তাঁর মৃত্যু হয়েছে বলে জানা গেছে।
প্রবীণ নেতার মৃত্যুর খবর শুনেই হাওড়ার বাড়িতে ছুটে আসেন বহু বিশিষ্ট রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ। আসেন অসংখ্য অনুরাগী থেকে শুরু করে কর্মী সমর্থক। শুধু তৃণমূল কর্মীরাই নয়, অশোকবাবুর মৃত্যুর খবর পেয়ে বাড়িতে ছুটে আসেন অন্যান্য রাজনৈতিক দলের কর্মীরাও। বাড়িতে এসে শেষ শ্রদ্ধা জানান সাংসদ প্রসূন বন্দ্যোপাধ্যায়, রাজ্যের পুরমন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম, সমবায় মন্ত্রী অরূপ রায়, ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী লক্ষ্মীরতন শুক্লা, বিধায়ক জটু লাহিড়ী, শীতল সর্দার, ব্রজমোহন মজুমদার, মেয়র ডা: রথীন চক্রবর্তী, প্রাক্তন বিধায়ক সিপিএম নেতা লগন দেও সিং, প্রাক্তন মেয়র সিপিএম নেতা গোপাল মুখোপাধ্যায়, কংগ্রেস নেতা মনোজ পান্ডে প্রমুখ। মৃত্যুকালে অশোকবাবু রেখে গিয়েছেন স্ত্রী ও দুই বিবাহিতা কন্যা ও পরিবারবর্গকে। অশোকবাবু হুগলি নদী জলপথ পরিবহন সমবায় সমিতির চেয়ারম্যান ছাড়াও ব্রিজ অ্যান্ড রুফ কারখানার তৃণমূল ট্রেড ইউনিয়নের কার্যকরী সভাপতি। হাওড়ার ঘুসুড়ির হনুমান জুটমিলেও তিনি দলের ইউনিয়নের দায়িত্বে ছিলেন। তাঁর মৃত্যুতে সর্বত্রই শোকের ছায়া নেমে এসেছে। এদিন তাঁর মরদেহ যায় হুগলি ডকে। সেখান থেকে হাওড়া পুরসভা, এইচআইটি, বিধানসভা ঘুরে হাওড়ার বাঁধাঘাটে শ্মশানে তাঁর শেষকৃত্য সম্পন্ন হবে বলে জানা গেছে।

প্রশ্ন অনেক: দশম পর্ব

Tree-bute: রবীন্দ্রনাথ শুধু বিশ্বকবিই শুধু নন, ছিলেন সমাজ সংস্কারকও