four day work in a week

esic বা employee state insurance corporation কর্মী নিয়োগের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করল। এই মুহূর্তে সারা দেশে কর্মী নিয়োগের বিষয়টি যথেষ্ট গুরুত্বপূর্ণ হয়ে উঠেছে। আর সেই কারণেই একাধিক কোম্পানির তরফে কর্মী নিয়োগের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়েছে। তবে এবারে এই কর্মী নিয়োগের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশের ফলে সুবিধা হবে সাধারণ মানুষের।

করোনা পরবর্তী সময়ে কর্মী ছাঁটাই দেশ জুড়ে যথেষ্ট বৃদ্ধি পেয়েছিল। সেই সঙ্গে বেড়েছিল ওয়ার্ক ফ্রম হোম। সেই কারণেই একাধিক সংস্থার তরফে নতুন বছরে বিভিন্ন জায়গাতে যোগ দেওয়ার চেষ্টা প্রবল হয়ে উঠেছিল। নতুন বছরে একাধিক সংস্থার তরফে কর্মী নিয়োগের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়েছে। জানা গিয়েছে, ৬৩০৬ টি আপার ডিভিসান ক্লার্ক থেকে শুরু করে আরও বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ণ পদে কর্মী নিয়োগের জন্য এই বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়েছে।

আরও খবর পড়ুন – ভ্যাকসিন নিয়ে আনন্দে বরফজমা লেকের ওপর ভাংরা, ভাইরাল ভিডিও

আগ্রহী প্রার্থীদের দ্রুত আবেদন করতে জানানো হয়েছে । esic.nic.in এই ওয়েবসাইট মারফত আবেদন করতে জানানো হয়েছে। স্টেনোগ্রাফার পদের ক্ষেত্রে প্রার্থীদের কমপক্ষে ক্লাস ১২ পাশ করতে হবে। এছাড়া প্রার্থীদের কম্পিউটারে দক্ষ হতে হবে। পাশপাশি প্রার্থীদের মিনিটে ৮০ টি শব্দ ইংলিশ অথবা হিন্দিতে টাইপ করতে হবে।

অন্যদিকে আপার ডিভিশান ক্লার্কের ক্ষেত্রে প্রার্থীদের কমপক্ষে স্নাতক হতে হবে। এছাড়া কম্পিউটারে দক্ষ হতে হবে। প্রার্থীদের বয়স ১৮ থেকে ২৭ বছরের মধ্যে হতে হবে। নিয়ম অনুসারে বয়সের ক্ষেত্রে ছাড় দেওয়া হবে। প্রার্থীদের আবেদন করার জন্য esic.nic.in এর মূল ওয়েবসাইটে যেতে হবে। সেখান থেকে recruitment অপশনে যেতে হবে। সেখানে গিয়ে কোন পদের জন্য আবেদন করছেন তা জানাতে হবে। প্রয়জনীয় তথ্য দিতে হবে। আর সব শেষে ফি দিতে হবে। প্রয়োজনীয় ডকুমেন্ট স্ক্যান করে সাবমিট করতে হবে। সফল প্রার্থীদের বেতন ২৫৫০০ টাকা দেওয়া হবে (মাসিক)। এছাড়াও বাকি সুবিধা দেওয়া হবে।

আরও পড়ুন – ট্রেনেই বিনোদন : কামরায় চলবে পছন্দের সিনেমা-ভিডিও-খবর

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

করোনা পরিস্থিতির জন্য থিয়েটার জগতের অবস্থা কঠিন। আগামীর জন্য পরিকল্পনাটাই বা কী? জানাবেন মাসুম রেজা ও তূর্ণা দাশ।