ম্যাঞ্চেস্টার: বিশ্বকাপে ছক্কার রেকর্ড গড়ল ইংল্যান্ড৷ ওয়ান ডে ক্রিকেটে এক ইনিংসে সর্বোচ্চ ২৫টি ছক্কা হাঁকিয়ে রেকর্ড গড়লেন ইংরেজ ব্যাটসম্যানরা৷ দলীয় রেকর্ডের পাশপাশি মঙ্গলবার ওল্ড ট্র্যাফোর্ডে আফগানিস্তানের বিরুদ্ধে ব্যক্তিগতভাবেও রেকর্ড ছক্কা হাঁকান ইংল্যান্ড ক্যাপ্টেন ইয়ন মর্গ্যান৷ অধিনায়কের বিধ্বংসী ইনিংসে ভর করে আফগানদের সামনে ৩৯৮ রানের টার্গেট রাখল ইংল্যান্ড৷

ওল্ড ট্র্যাফোর্ডে এদিন টস জিতে ইংল্যান্ড অধিনায়ক প্রথমে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেন৷ নিজের সিদ্ধান্তের স্বপক্ষে মর্গ্যান বলেন, ‘পিচ দেখে দারুণ মনে হচ্ছে৷ ম্যাঞ্চেস্টারের যে রকম আবহাওয়া চলছে, তাতে ম্যাচের জন্য সবকিছু সময় মতো প্রস্তুত করে তোলার জন্য ওল্ড ট্র্যাফোর্ডের প্রত্যেকের প্রশংসা প্রাপ্য৷’ রবিবার এখানেই পাকিস্তানের বিরুদ্ধে ৫ উইকেটে ৩৩৬ রান তুলেছিল ভারত৷ ভারতের পাক বধের মাঠেই এদিন রেকর্ডের বন্যা ইংল্যান্ডের৷

চোটের জন্য এদিন মাঠে নামায় অনিশ্চিত ছিলেন ইংল্যান্ড অধিনায়ক৷ কিন্তু মাঠে নেমে মানসিকভাবে অসুস্থ করে দিলেন আফগান বোলারদের৷ রশিদ খান, জারদানদের পিটিয়ে ছক্কার রেকর্ড হাঁকান মর্গ্যান৷ বিশ্বকাপে তো বটেই, ওয়ান ডে কেরিয়ারেও এক ইনিংসে সর্বাধিক ১৭টি ছক্কা মেরে রেকর্ড গড়েন ইংল্যান্ড ক্যাপ্টেন৷ এর আগে ওয়ান ডে ক্রিকেটে সর্বাধিক ১৬টি ছয় মারার রেকর্ড ছিল রোহিত শর্মা, এবি ডি’ভিলিয়ার্স ও ক্রিস গেইলের৷ কিন্তু এদিন সবাইকে টপকে বিশ্বরেকর্ড গড়েন মর্গ্যান৷

আফগান বোলারদের বিরুদ্ধে এদিন অত্যন্ত নির্মম ছিলেন ইংল্যান্ড ক্যাপ্টেন৷ ৭১ বলে ১৪৮ রানের বিধ্বংসী ইনিংস খেলেন মর্গ্যান৷ ইনিংসে ১৭টি ছক্কা ও চারটি বাউন্ডারি মারেন তিনি৷ স্ট্রাইক-রেট ২০৮.৪৫৷ পাশাপাশি এদিন ৫৭ বলে সেঞ্চুরি হাঁকিয়ে বিশ্বকাপের ইতিহাসে চতুর্থ দ্রুততম সেঞ্চুরি করেন মর্গ্যান৷

ব্যক্তিগত ২৮ রানে মর্গ্যানের ক্যাচ ফেলার খেসারত দিতে হল আফগানদের৷ জীবনদান পাওয়ার পর ৪৫ বলে ১২০ রানের ইনিংস খেলেন মর্গ্যান৷ ছক্কার ব্যক্তিগত রেকর্ডের পাশপাশি ইংল্যান্ড এদিন ওয়ান ডে ক্রিকেটে সর্বাধিক ২৫টি ছয় মারার রেকর্ড গড়ে৷ এর আগে তাদেরই ছিল এক ইনিংসে ২৪টি ছক্কার রেকর্ড৷ মর্গ্যানের ১৭টি ছক্কা ছাড়াও মইন আলি ৪টি, জনি বেয়ারস্টো ৩টি এবং জো রুট একটি ছক্কা হাঁকান৷

মর্গ্যান ছাড়াও ইংল্যান্ড ওপেনার বেয়ারস্টো ৯০ এবং রুট ৮৮ রানের গুরুত্বপূর্ণ ইনিংস খেলেন৷ এছাড়া শেষ দিকে ৯ বলে চার ছক্কা-সহ ৩১ রানের ঝোড়ো ইনিংস খেলেন আলি৷ শেষ ১০ ওভারে ১৪২ রান তোলেন ইংরেজ ব্যাটসম্যানরা৷ শেষ পর্যন্ত ছ’ উইকেটে ৩৯৭ রান তোলে ইংল্যান্ড৷ এদিনটা ছিল আফগান অফ-স্পিনার রশিদ খানের কাছে ভয়ংকর৷ ৯ ওভারে হাত ঘুরিয়ে ১১০ রান খরচ করেন বিশ্বের নম্বর ওয়ান অফ-স্পিনার৷ সেই সঙ্গে বিশ্বকাপের ইতিহাসে সবচেয়ে খারাপ বোলিংয়ের নজির গড়লেন রশিদ৷