লন্ডন: চতুর্থ টেস্ট জিতে অ্যাশেজ নিজেদের দখলে রাখলেও অন্তিম টেস্ট জিতে ২০০১ পর ইংল্যান্ডের মাটিতে কি সিরিজ জিততে পারবে অস্ট্রেলিয়া? ওভাল টেস্টের তৃতীয়দিনের শেষে অস্ট্রেলিয়ার সেই সম্ভাবনা কিন্তু ফিকে হয়ে গেল অনেকটাই। প্রথম ইনিংসে এমনিতেই ৬৯ রানে এগিয়েছিল ইংল্যান্ড। তৃতীয়দিন জো ডেনলি ও বেন স্টোকসের ব্যাটে দ্বিতীয় ইনিংসে সেই লিড অনেকটাই বাড়িয়ে নিল বিশ্বচ্যাম্পিয়নরা। তৃতীয়দিনের শেষে ইংল্যান্ডের রান ৮ উইকেটে ৩১৩। অস্ট্রেলিয়ার চেয়ে আপাতত ৩৮২ রানে এগিয়ে তারা।

ওপেনার রোরি বার্নস ও অধিনায়ক জো রুট স্বল্প রানে ফিরে গেলেও আরেক ওপেনার জো ডেনলি ও অল-রাউন্ডার বেন স্টোকসের তৃতীয় উইকেট পার্টনারশিপে তৃতীয় টেস্টের দখল নিল ইংরেজরা। শতরান থেকে মাত্র ছয় রান দূরে দাঁড়িয়ে পিটার সিডলের বলে এদিন আউট হন জো ডেনলি। তার আগে ইংরেজ ওপেনারের ৯৪ রানের ইনিংস সাজানো ছিল ১৪টি চার ও ১টি ছয়ে। ৬৭ রানের ইনিংস খেলে তাঁকে যোগ্য সঙ্গত করেন বেন স্টোকস। ইংরেজ অল-রাউন্ডারের ইনিংসে ছিল ৫টি চার ও ২টি ছয়। যদিও মাত্র ৭ রানেই একবার জীবন ফিরে পান স্টোকস।

স্টোকস, ডেনলি আউট হওয়ার পর ইংল্যান্ডের লিড এগিয়ে নিয়ে যান জোস বাটলার। তবে সেই অর্থে কারও সাহায্য পাননি তিনি। অল্প রানে প্যাভিলিয়নে ফিরে যান জনি বেয়ারস্টো, স্যাম কারেন, ক্রিস ওকসরা। মার্শের ডেলিভারিতে স্লিপে ওকসের দুরন্ত ক্যাচ তালুবন্দি করেন স্মিথ। শেষ অবধি অর্ধশতরান থেকে তিন রান দূরে থামেন বাটলার। দলীয় ৩০৫ রানের মাথায় ব্যক্তিগত ৪৭ রানে সিডলের ডেলিভারিতে ল্যাবুশেনের হাতে ধরা পড়েন তিনি।

এরপর দিনের বাকি কয়েকটা ওভার কাটিয়ে দেন দুই অপরাজিত ব্যাটসম্যান জোফ্রা আর্চার ও জ্যাক লিচ। দিনের শেষে ৩ রানে জোফ্রা আর্চার ও ৫ রানে অপরাজিত রয়েছেন লিচ। তৃতীয়দিনের শেষে ৩৮২ রানে এগিয়ে থাকা ইংল্যান্ড বাকি দুই উইকেটে চতুর্থদিন লিড কতটা বাড়িয়ে নিতে পারে এখন সেটাই দেখার। তবে তৃতীয়দিনের শেষে রিপোর্টকার্ড যা বলছে তাতে স্মিথ বাধা কাটিয়ে ইংরেজ বোলাররা প্রথম ইনিংসের পারফরম্যান্স ধরে রাখতে পারলে সিরিজে সমতা ফেরানো সময়ের অপেক্ষা ইংল্যান্ডের।