লন্ডন: অপেক্ষার অবসান। আগামী মাসেই করোনা পরবর্তী সময় ক্রিকেট ফিরছে বাইশ গজে। সোমবার ওয়েস্ট ইন্ডিজের ইংল্যান্ড সফরের ক্রীড়াসূচি প্রকাশ করল ইংল্যান্ড এবং ওয়েলস ক্রিকেট বোর্ড। আগামী ৮ জুলাই সাউদাম্পটনের অ্যাজিয়াস বোলে সিরিজের প্রথম টেস্টে সফরকারী ক্যারিবিয়ানদের মুখোমুখি হবে ইংল্যান্ড। নিরাপত্তা সংক্রান্ত গাইডলাইন মেনে দর্শকহীন স্টেডিয়ামেই অনুষ্ঠিত হবে ম্যাচগুলি।

যদিও একমাস আগেই অর্থাৎ ৯ জুন সিরিজ খেলতে যুক্তরাজ্যের মাটিতে পৌঁছে যাচ্ছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ দল। ম্যাঞ্চেস্টারে গোটা ওয়েস্ট ইন্ডিজ দলকে কোয়ারেন্টাইনে রাখা হবে তিন সপ্তাহের জন্য। যদিও কোয়ারেন্টাইন পিরিয়ড চলাকালীন অনুশীলন করার ক্ষেত্রে কোনওরকম নিষেধাজ্ঞা নেই তাঁদের। তিন সপ্তাহ কোয়ারেন্টাইনে থাকাকালীন নির্দিষ্ট গাইডলাইন মেনে ওল্ড ট্র্যাফোর্ডে অনুশীলন সারবে জেসন হোল্ডার অ্যান্ড কোম্পানি।

সিরিজের দ্বিতীয় এবং তৃতীয় টেস্ট দু’টি অনুষ্ঠিত হবে ম্যাঞ্চেস্টারের ওল্ড ট্র্যাফোর্ডেই। সব পরিকল্পনামাফিক চললে করোনা পরবর্তী সময় ওয়েস্ট ইন্ডিজের ইংল্যান্ড সফর দিয়েই ক্রিকেট ফিরবে বাইশ গজে। এক বিবৃতিতে ইংল্যান্ড ক্রিকেট বোর্ডের ডিরেক্টর স্টিভ এলোর্থি জানিয়েছেন, ‘ক্রিকেটার, ম্যাচ অফিসিয়াল, অপারেশনাল স্টাফ, ব্রডকাস্টার এবং মিডিয়া সকলকে স্টেডিয়ামে একটা নিরাপদ পরিবেশ প্রদান করা আমাদের প্রধান লক্ষ্য। সরকার এবং মেডিক্যাল টিমের সঙ্গে আমরা প্রতিনিয়ত যোগাযোগ রেখে চলেছি। তারা আমাদের কঠিন সময়ে প্রভূত সাহায্য করেছে। আমরা আমাদের প্রস্তাবিত সূচি পেশ করেছি। গোটা ব্যাপারটি এখন সরকারি অনুমোদনের অপেক্ষায়।’

একইসঙ্গে করোনা পরবর্তী সময় সহযোগীতার হাত বাড়িয়ে দিয়ে সিরিজটাকে দিনের আলো দেখাতে সাহায্য করায় ওয়েস্ট ইন্ডিজ ক্রিকেট বোর্ডকেও ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন তিনি। উল্লেখ্য, সাত সপ্তাহের ইংল্যান্ড সফরের জন্য আগামী ৮জুন দেশ ছাড়ছেন ক্যারিবিয়ান ক্রিকেটাররা। ইংল্যান্ড সফরের কথা মাথায় রেখে গত সপ্তাহেই ২৫ জনের স্কোয়াডকে অনুশীলনে নামার অনুমতি দিয়েছিল ওয়েস্ট ইন্ডিজ বোর্ড।

অন্যদিকে ১৮ জন টেস্ট বোলার ব্যক্তিগত উদ্যোগে অনুশীলন শুরু করার পর ইংল্যান্ড ক্রিকেট বোর্ড অনুশীলনের জন্য ৫৫ জন ক্রিকেটারের তালিকা প্রস্তুত করেছে।

প্রশ্ন অনেক-এর বিশেষ পর্ব 'দশভূজা'য় মুখোমুখি ঝুলন গোস্বামী।